কুমিল্লায় ইউপি চেয়ারম্যানকে সদস্যদের অনাস্থা

মুরাদনগর প্রতিনিধি :–
কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার চাপিতলা ইউপি চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ ভূঁঞার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ এনে পরিষদের ১১ জন সদস্য অনাস্থা প্রস্তাব দিয়েছেন। আজ সোমবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে তারা এ অনাস্থা প্রস্তাব লিখিতভাবে দাখিল করেন।
জানা যায়, মুরাদনগর উপজেলার ৮নং চাপিতলা ইউপি’র চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ ভূঁঞাকে অপসারণের জন্য ওই ইউপির ১১ জন সদস্যের উপস্থিতিতে সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অনাস্থা প্রস্তার দিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট দাখিল করা হয়। অনাস্থা প্রস্তাবে তারা ওই চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালনকালে দুর্নীতি, অনিয়ম, স্বেচ্ছাচারীতা, অর্থ আত্মসাত, ভিজিএফ’র চাউল বিতরণে অনিয়ম, পরিষদের সদস্যদের সাথে অসদাচরণসহ বিভিন্ন অভিযোগ উত্থাপন করা হয়। অনাস্থা প্রস্তাবে স্বাক্ষরকারী ইউপির ১১ সদস্য হলেন- মো. জামাল হোসেন, মো. মোবিন, মো. নোমান, মো. আবদুল করিম, আবদুল কুদ্দুছ, নাঈম সরকার, জাহাঙ্গীর আলম, সাহাবুদ্দীন টুটুল, বিকাশ চন্দ্র দত্ত, উম্মে কুলসুম, মোসাম্মৎ ফিরোজা আক্তার। অভিযোগকারী সদস্য আবদুল কুদ্দুছ জানান, চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ ইউপি সদস্যদের স্বাক্ষর জাল করে বরাদ্দকৃত টাকা ও চাল, হোল্ডিং নম্বর প্রদানের বিপরীতে আদায়কৃত ৫ লাখ টাকা ও টিআর-কাবিখার প্রকল্প চেয়ারম্যানদের স্বাক্ষর জাল করে চাউল-গম আত্মসাতসহ বিভিন্ন কর্মকান্ডের বিষয়ে প্রতিকার না পেয়ে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন ২০০৯ এর ৩৯ ধারা অনুসারে আমরা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে অনাস্থা প্রস্তাব লিখিতভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট দাখিল করেছি। অভিযুক্ত চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ ভূঁঞা জানান, সামাজিকভাবে হেয় করার জন্য আমার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উত্থাপন করা হয়েছে, যা সঠিক নয়। এ বিষয়ে জানার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মোবাইল ফোনে চেষ্টা করেও ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেয়া যায়নি। তবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের গোপনীয় সহকারি (সিএ) হারুনুর রশিদ ১১ সদস্যের অনাস্থা প্রস্তাব দাখিলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply