বাহরাইনে অগ্নিকান্ডে নিহত ৩ শ্রমিকের লাশ দাফন সম্পন্ন, এলাকায় শোকের মাতম

কুমিল্লা প্রতিনিধি:–
বাহরাইনের মাখারকায় অগ্নিকান্ডে নিহত কুমিল্লার বুড়িচংয়ে ৩ শ্রমিকের লাশ রবিবার সকালে তাদের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। শনিবার গভীর রাতে তাদের লাশ এলাকায় পৌঁছুলে লাশ দাফনের পূর্ব পর্যন্ত হাজার হাজার জনতা নিহতদের বাড়িতে ভিড় জমায়।
জানা যায়, গত ২৮ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার বাহরাইনের রাজধানী মানামার মাখারকায় স্থানীয় সময় রাত আড়াইটার পর বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হয়ে একই কক্ষের ৩ বাংলাদেশি শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। শনিবার সন্ধ্যায় এমিরেটস্ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে ওই ৩ নিহতের লাশ শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে এসে পৌঁছে। বিমানবন্দরে আনুষ্ঠানিকতা শেষে গভীর রাত ২টার দিকে নিহতদের লাশ তাদের কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। এ ৩ পরিবারকে ঘিরে  রামপুর ও জিয়াপুর গ্রামে চলছে এখন চলছে শোকের মাতম। বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আ.ন.ম নাজিম উদ্দিন জানান, রবিবার সকাল ১১টার দিকে উপজেলার ভারেল্লা ইউনিয়নের রামপুর গ্রামের নাজির আহাম্মদের পুত্র মোশাররফ হোসেন (৩২) ও একই গ্রামের গফুর মিয়ার পুত্র জালাল উদ্দিনের (৩০) এবং বেলা সাড়ে ১১টার দিকে একই উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়নের জিয়াপুর গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার পুত্র দুলাল মিয়ার (৩০) জানাযা শেষে তাদেরকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। এসময় হাজার হাজার জনতা নিহতদের লাশ একনজর দেখার জন্য বাড়িতে ভিড় জমায়। এতে পরিবারগুলোকে ঘিরে শোকাবহ পরিবেশের সৃষ্টি হয়। নিহত মোশারফ হোসেনের চাচা ইদ্রিস মিয়া জানান, মোশাররফের স্ত্রী মর্জিনা ও তার ৩ শিশু সন্তান রয়েছে। নিহত দুলাল মিয়া নিহত মোশাররফের শ্যালক। গত চার বছর আগে ঋণগ্রস্ত হয়ে মোশাররফ বাহরাইন যায়। তার আর কোন সহায় সম্পদ নেই এবং বিদেশে যাওয়ার সময় ঋণের টাকা আজো সে পরিশোধ করতে পারেনি। এ অবস্থায় তার এ দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু পরিবারটিকে পথে বসিয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply