মাঠে মাঠে সবুজের সমারোহ…

মাসুমুর রহমান মাসুদ, চান্দিনা :—
দৃষ্টির ক্ষমতায় যতদূর চোখ যায় শুধু সবুজ আর সবুজ। সবুজের সমারোহে চোখ জুড়িয়ে যায়। আবহমান বাংলার এই রূপ চিরন্তন। হাজার বছর ধরে এ সংস্কৃতি ও রূপ সৌন্দর্যে কবি অমিয় চক্রবর্তীর ভাষায় বলতে হয় ‘চিরদিন বাংলাদেশ’।

কনকনে শীতের শুভ্র কুয়াশার চাদর উপেক্ষা করে সবজি চাষে মত্ত কৃষক। মাঠে মাঠে সবুজ সবজির বাহারি খেলা। টমেটো, আলু, কুমড়া, শষা, ফুলকপি, বাঁধাকপি, হরেক জাতের সীম, লাউ, করলা, মরিচ, ধনেপাতা… এর গন্ধে আমোদ চারিদিক। সবুজের সমারোহে একাকার মাঠের পর মাঠ।

চান্দিনা উপজেলায় সবুজ সবজির বিপ্লব হয়েছে এবছর। উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে কৃষকরা এবার সবজি চাষে বেশি মনোযোগী হয়েছে। অন্য ফসলের তুলনায় সবজিতে লাভ বেশি হওয়ায় সবজি চাষ দিন দিন বাড়ছে।

এবছর চান্দিনায় টমোটে চাষে অধিক মুনাফার স্বপ্ন দেখছেন টমেটো চাষীরা। টমেটো আবাদে পরিশ্রম বেশি হলেও লাভের টাকা হাতে পেলে কৃষকের মুখ জুড়ে আসে আনন্দের হাসি। উপজেলার চিলোড়া পূর্ব অম্বরপুর গ্রামের চাষী ওয়ালীউল্লাহ্ জানান, উৎপাদিত টমেটো রাজধানী ঢাকার বাজার বিক্রয় করেন তারা। বর্তমানে মন প্রতি ৮ শত টাকা দরে বিক্রি করতে পারছেন। জানুয়ারি মাসের শেষ দিকে খরচ পুষিয়ে লাভের মুখ দেখবেন তারা।

দেবিদ্বার উপজেলার তালতলা গ্রামের টমেটো চাষী মো. মিজান মিয়া জানান, জানুয়ারি-ফেব্র“য়ারি মাস জুড়ে হরতাল অবরোধ না থাকলে উৎপাদিত সবজিতে অধিক মুনাফা গুণতে পারবেন তারা। একই গ্রামের ফুলকপি চাষী মো. খলিল জানান, ফেব্র“য়ারি মাসে ফুলকপি বিক্রি উপযোগী হবে। এসময় দেশের সার্বিক অবস্থা ভালো থাকলে, পরিবহনে সমস্যা না হলে ভাল মুনাফা পাবেন তিনি।

কৃষকরা জানিয়েছেন, টমেটো চাষে শতাংশ প্রতি খরচ হয় ১২-১৫ শত টাকা। ভাল ফলন হলে এবং পর্যাপ্ত বাজারদর পেলে ৪-৫ হাজার টাকার টমেটো বিক্রি করা সম্ভব হয়। চান্দিনা ও দেবিদ্বার উপজেলার কৃষকদের সাথে আলাপকালে জানাগেছে, গত কয়েক বছর ধরে টমেটো চাষে স্বাবলম্বী হয়েছেন অনেকেই।

চান্দিনা উপজেলার চিলোড়া, এতবারপুর, শ্রীমন্তপুর, বরকইট, আলিকামোড়া, মাধাইয়া, হারং, মাইজখার, দারোরা, মহিচাইল, কৈলাইন, দেবিদ্বার উপজেলার তালতলা, মোহনপুর, মোহাম্মদপুর, কুরুইন, ভৈষেরকুট, বাগমারা, বরকামতা, ছোটনাসহ বিভিন্ন এলাকায় সরেজমিনে ঘুরে দেখাগেছে গম, সরিষা বা ধানের তুলনায় সবজির চাষ বেশি হয়েছে।

বাংলাদেশ এর অর্থনীতি কৃষি নির্ভর। সবুজ মাঠের দিকে দৃষ্টি পড়তেই এ কথা মর্মে অনুভূত হয়।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply