ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ৫৫ কি.মি. যানজট : যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ

আলমগীর হোসেন,দাউদকান্দি :–
আজ শূক্রবার ভোর থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দি সেতু এলাকা থেকে কুমিল্লার পদুয়া বাজার পর্যন্ত প্রায় ৬০ কিলোমিটার সড়কজুরে তীব্র যানজট হয়। দাউদকান্দি থেকে পদুয়া বাজার পর্যন্ত সড়কজুরে চার সাড়ির দীর্ঘ এ যানজটে যাত্রীদের ঘন্টার পর ঘন্টা আটকা পড়তে হয়। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েন যাত্রীরা। নির্ধারিত সময়ের আগে রত্তনা হয়েও সঠিক সময়ে পৌছতে পারেনি যাত্রীদের গন্তব্যস্থানে। দাউদকান্দি বিশ্বরোড, গৌরীপুর, ইলিয়টগঞ্জ, চান্দিনার কুটুম্বপুর, মাধাইয়া, চান্দিনা বাসষ্ট্যান্ড ও নিমসার এলাকার বাসষ্ট্যান্ডগুলোতে ছিল যানবাহন ও যাত্রীদের বাড়তি চাপ।  দাউদকান্দি টোলপ্লাজা থেকে যানবাহনগুলোকে থেমে থেমে ধীর গতিতে চলতে দেখা যায়। যানজট ও অবরোধের অজুহাত দেখিয়ে যাত্রীদের কাছ থেকে দ্বিগুন হারে অতিরিক্ত গাড়ি ভাড়া আদায় করা হয়। ঢাকাগামী বাসযাত্রী মোঃ ফিরোজ সিকদার জানান, সকাল ৬ টায় কুমিল্লা থেকে রওনা হয়ে বেলা ১১টায় গৌরীপুর পৌছি। ট্রাক চালক মোঃ আবু খায়ের জানান, নিমসার থেকে কাঁচামাল নিয়ে ভোরে যাত্রাবাড়ী পৌছার কথা ছিল অথচ সকাল ৯টা পর্যন্ত পেন্নাই এলাকায় যানজটে আটকা পড়ে আছি। এর কারনে মালিক পক্ষের অনেক ক্ষতি হয়ে গেল। এ্যাম্বুলেন্স চালক মোঃ মামুন জানান, রোগী নিয়ে আমরা পড়েছি চরম বিপাকে। সড়কে এতটাই যানজট যে রোগী নিয়ে একই স্থানে ঘন্টার পর ঘন্টা পড়ে আছি এবং ভয়ে আছি রোগীর কি না হয়। ঢাকার সায়েদাবাদ থেকে কুমিল্লার ২ ঘন্টার পথ ৬/৭ ঘন্টা সময় লাগছে যেতে। বহু স্থানে যাত্রীরা ভারি মালামাল, ব্যাগ, ছোট ছোট শিশুদের কোলে নিয়ে ১০/১৫ কিলোমিটার পথ হেটে যেতে দেখা গেছে। এদিকে মহাসড়কের পাশাপাশি ফিডার সড়কগুলোতেও সৃষ্টি হয় দীর্ঘ যানজট। মহাসড়কের গৌরীপুরের সাথে গৌরীপুর-হোমনা, গৌরীপুর-কচুয়া, গৌরীপুর-মতলব, ইলিয়টগঞ্জ-মুরাদনগর সড়কগুলো এসে মিলিত হওয়ায় ওইসব স্থানে ভয়াবহ যানজট সৃষ্টি হয়। গাড়ী চালক ও যাত্রীরা অভিযোগ করে বলেন, যানজট নিরশনে পুলিশের তেমন কোন ভূমিকা দেখা যায়নি। তাছাড়া আজ শুক্রবার যানবাহন ও যাত্রীদের চাপ মাত্রাতিরিক্ত হবে এটা ভেবে যানজট নিরশনে পুলিশের আগাম প্রস্তুতি নেওয়া উচিত ছিল। হাইওয়ে পুলিশ জানান, এক সপ্তাহের টানা অবরোধ শেষে আজ যানবাহন ও যাত্রীদের চাপ মাত্রাতিরিক্ত। এছাড়াও অতিরিক্ত যানবাহন, রাস্তার উপর যাত্রী ও মালামাল উঠানো নামানো, বেপরোয়া গাড়ি চালানো, ওভারটেকিং করার কারনে এ যানজট সৃষ্টি হয়। যানজট নিরশনে সড়কে পুলিশি টহল ও বাসষ্ট্যানগুলোতে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। যানজট নিরশনে হাইওয়ে পুলিশ আ-প্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply