নাসিরনগরে প্রকাশ্যে রুপ নিয়েছে বিএনপির দলীয় কোন্দল

আকতার হোসেন ভুইয়া,নাসিরনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া) :–

নাসিরনগর উপজেলা  বিএনপির পাল্টা পাল্টি শোডাউন ও অবরোধ কর্মসূচী পালনের মধ্য দিয়েই দলীয় কোন্দল প্রকাশ্যে রুপ নিয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে ঝিমিয়ে থাকা বিএনপির অপর গ্রুপটির হঠ্যাৎ দলীয় কর্মসূর্চী পালনের ঘোষনা দেয়ায় তৃণমূল পযার্য়ের নেতাকর্মীরা পড়েছে বিপাকে। মূল গ্রুপে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির  প্রবাসী কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক  ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব সৈয়দ এ কে একরামুজ্জামান সুখন ও সাধারণ সম্পাদক ও গোর্কণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ হান্নান। অপর গ্রুপে উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি মোঃ ইকবাল চৌধুরী ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডঃ কামরুজ্জামান মামুন ও বর্তমান কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি ওমরাও খান। তথ্য অনুসন্ধানে জানা যায়, ২০০৯ সালে উপজেলা বিএনপির কমিটি গঠনের পর থেকে বিএনপিতে দৃশ্যত কোন কোন্দল নেই বললেও মতানৈক্য অঘোষিতভাবে কোন্দল দেখা দেয়। পদ বঞ্চিত হয় সাবেক সভাপতি ইকবাল চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক একেএম কামরুজ্জামান মামুন । তখন উপজেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব সৈয়দ এ কে একরামুজ্জামান সুখন ও সাধারণ সম্পাদক ও গোর্কণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ হান্নান নিবার্চিত হয়। তারপর থেকেই পদ বঞ্চিত নেতারা দলীয় কর্মকান্ড থেকে নীরব থাকেন।  গত ২০ অক্টোবর ২০১২ সালে ইউনিয়ন যুবদলের সমাবেশে নেতাদের বক্তৃতা দেয়াকে কেন্দ্র করে এই ফাটল প্রকাশ্যে রুপ নেয়। এরপর থেকেই এই গ্রুপ নিজেদেরকে প্রকৃত ও ত্যাগী বিএনপি হিসেবে দাবি করেন। সম্প্রতি এ গ্র“পের সাথে যোগ দেন বর্তমান কমিটিতে থাকা সিনিয়র সহ-সভাপতি ও কুন্ডা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ওমরাও খান। তারা তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সাথে কয়েক দফা সভা-সমাবেশ করে বৃহস্পতিবার বিএনপিসহ ১৮ দলের ডাকা সারা দেশে টানা ১৩২ ঘন্টার রাজপথ,রেলপথ,নৌপথ অবরোধের অংশ হিসেবে নেতাকর্মীদের মুক্তি ও ঘোষিত তফসিল বাতিলের করে সংসদ নিবার্চন নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবীতে নাসিরনগরে প্রকৃত ও ত্যাগী বিএনপি হিসেবে দাবিদার গ্রুপের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও অবরোধ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।পরে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি সৌধ চত্বরে সিনিয়র সহ-সভাপতি ও কুন্ডা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ওমরাও খানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জোট নেতা ও উপজেলা চেয়ারম্যান আহসানুল হক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডঃ কামরুজ্জামান মামুন প্রমূখ। অন্যদিকে বর্তমান কমিটির উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক গোকর্ণ ইউপি চেয়ারম্যান এম. এ. হান্নানের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল ও অবরোধ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় ।  পরে দলীয় কাযালয়ের সামনে এসে এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা বিএনপির সহ সভাপতিও ইউপি চেয়ারম্যান ফয়েজ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তৃতা করেন উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক গোকর্ণ ইউপি চেয়ারম্যান এম. এ. হান্নান,সহ সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান হাজ্বী জামাল মিয়া, যুগ্ম সম্পাদক আজিজুর রহমান চৌধুরী,সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর হোসেন প্রমুখ। এসময় বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। বিএনপির দুই পক্ষ একই কর্মসূর্চী আলাদাভাবে পালন করায় বিএনপির দীর্ঘদিনের আন্তকোন্দল প্রকাশ্যে রুপ নেয় এবং তৃণমূল থেকে নেতাকর্মীরা দুইভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছে।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply