চান্দিনার ব্যাংকগুলোতে হরতাল অবরোধের প্রভাব; গ্রাহক দুর্ভোগ চরমে

মাসুমুর রহমান মাসুদ,চান্দিনা(কুমিল্লা):—

সারা দেশে ১৮ দলের টানা অবরোধ-হরতালের কারণে চান্দিনার ব্যংক গুলিতে টাকার সংকট চরম আকার ধারন করেছে। পেনশন গ্রাহক, ব্যবসায়ী, সাধারণ গ্রাহকরা দুর্ভোগে পড়েছে। নিরাপত্তা জনিত কারণে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তাদের নিজস্ব গাড়ীতে টাকা বহনের সাহস পাচ্ছে না। থানা পুলিশ নিরাপত্তার জন্য ফোর্স দিতে রাজি হলেও যানবাহন সংকটে টাকা আনতে পারছে না ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

অপরদিকে অবরোধের কারণে লেন-দেন কমে যাওয়ায় স্বাভাবিক কার্যদিবসের মত ব্যাংকে টাকা জমা হচ্ছে না। তাই তারল্য সংকটে পরেছে স্থানীয় ব্যাংকগুলো। ফলে বেসরকারি ব্যাংক গুলোও চেকের বিপরীতে নগদ টাকা দিতে পারছে না। এতে বিপাকে পড়েছে ব্যাংকের গ্রাহকরা।

একাধিক ব্যাংক সূত্রে জানাগেছে, অবরোধ-হরতালের কারণে প্রায় সব ব্যাংকেই লেনদেন রেকর্ড হারে কমে গেছে। এর মধ্যে সোনালী ব্যাংকের চান্দিনা শাখায় গত ৯ ডিসেম্বর সর্বনিম্ন পরিমাণ টাকা লেনদেন। ওই দিন ওই শাখায় মাত্র ৩৬ লক্ষ টাকা গ্রহণ এবং ৪৯ লক্ষ টাকা বিতরণ করেছে।

গতকাল বুধবার (১১ ডিসেম্বর) চান্দিনা উপজেলা হিসাব রক্ষণ অফিস দুইশতাধিক পেনশন গ্রাহকের পেনশনের অনুমোদন দিলেও ১৫০ জনের অধিক কাউকে পেনশনের টাকা দিতে পারেনি সোনালী ব্যাংক চান্দিনা শাখা।

ইসলামী ব্যাংকে চান্দিনা শাখার গ্রাহক মোস্তফা জানান, ‘বুধবার সকালে এবং দুপরে দুই লাখ টাকার চেক নিয়ে দু’বার ব্যাংকে যাই। টাকা নেই বলে কর্মকর্তারা ফিরিয়ে দিয়েছে। পরে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ বলেন- বেশি প্রয়োজন হলে আমরা চেক ইস্যু করে দেই, আপুনি কুমিল্লা শাখা থেকে টাকা তুলে নিতে পারেন।’

ষাটউর্ধ্ব পেনশন গ্রাহক খালেদা বেগম আক্ষেপ করে বলেন, ‘আমি সকাল ১০টায় পেনশনের জন্য উপজেলা হিসাব রক্ষণ অফিসে যাই। দুপুর আড়াইটায় উপজেলার কাজ শেষ হওয়ার পর ব্যাংকে গেলে জানতে পারি টাকা নেই, কাল আসতে হবে।’

এ ব্যপারে সোনালী ব্যংক চান্দিনা শাখার ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপক আমিনুল ইসলাম জানান, অবরোধের কারণে নিরাপত্তার অভাবে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ টাকা পরিবহনের জন্য অফিসের গাড়ী দিচ্ছে না। ভাড়ায় চালিত কোন গাড়ীও যাইতে চায় না। পুলিশ নিরাপত্তার জন্য ফোর্স দিলেও গাড়ী পাওয়া যাচ্ছে না। তাই টাকা আনা সম্ভব হচ্ছে না।

তিনি আরও জানান, আগে যেখানে প্রতিদিন কোটি টাকার উপরে লেন-দেন হতো এখন তার অর্ধেকও হয় না। গত ৯ ডিসেম্বর আমরা গ্রহণ করতে পেরেছি মাত্র ৩৬ লক্ষ টাকা আর বিতরণ করেছি ৪৯ লক্ষ টাকা।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply