মুরাদনগরে ১ লক্ষ টাকার জনই খুন হয় ব্যাবসায়ী ফারুক

মো: মোশাররফ হোসেন মনির, মুরাদনগর :–
কুমিল্লার মুরাদনগরে অবেশেষ মাত্র ৯দিনেই চাঞ্চল্যকর ব্যাবসায়ী ফারুক হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন করলো মুরাদনগর থানা পুলিশ।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মুরাদনগর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) স্বজল কুমার কানু ও এসআই আনোয়ারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ মোবাইলের কললিষ্টের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পেশাদার খুনি মান্নানকে আটক করে, তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে  সকল রহস্য উদঘাটন ও ব্যাবসায়ী ফারুক হোসেনের গলিত মস্তকটি উপজেলার নগরপাড় এলাকার একটি নির্জন বাড়ীর টয়লেটের টাংকি থেকে উদ্ধার করে।
পুলিশ জানায়, ত্রিশ গ্রামের মোস্তফার ২ স্ত্রীর সন্তানদের মধ্যে প্রতিহিংসার জের ধরেই ফারুক হোসেনের সৎ ভাই মাসুক ১ লক্ষ টাকার চুক্তিতে ভাড়াটে খুনিদেরকে দিয়ে তাকে হত্যা করায়। ওই ঘটনায় মোট ৭ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে। হত্যাকান্ডের হোতা সৎ ভাই মাসুক ও এর সাথে সরাসরি জড়িত জালাল, রফিক, মান্নান সহ ৪ জনকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরন করলেও বাকি ৩ খুনিকে গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে।
উল্লেখ্য, গত ২ ডিসেম্বর কোম্পানীগঞ্জ বাজারের কাপড় ব্যবসায়ী মেসার্স মা বস্ত্রালয়ের স্বত্তাধিকারী মোঃ ফারুক হোসেন (২৫)  নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে বাড়ী ফেরার পথে তাকে অপহরণ করে নিয়ে নগরপাড় বালুর মাঠে জবাই করে হত্যা করা হয়।
এ ব্যাপারে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিরুল আলম জানান, হত্যার সকল রহস্যই আমাদের কাছে আছে বাকি খুনিদের গ্রেফতার করতে পারলেই রহস্যের সমাপ্তি ঘটবে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply