ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হাসপাতাল থেকে নবজাতক চুরি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:–
জেলা সদর হাসপাতাল থেকে বৃহস্পতিবার দুপুরে অভিনব কায়দায় নবজাতক চুরির ঘটনা ঘটেছে। সদ্যজাত সন্তান হারিয়ে শহরতলীর সুহিলপুর মীরহাটি গ্রামের রিকশাচালক আবদুর রউফের স্ত্রী এখন পাগলপ্রায়।

জানা গেছে, জেলার সদর উপজেলার সুহিলপুর মীরহাটি গ্রামের আবদুর রউফের স্ত্রী বুধবার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি হন। ওই দিন দুপুরে সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে এক ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। প্রসবের পরই অপরিচিত এক নারী (৩৫) ওষুধ, খাবার এবং শিশুটির মাকে সেবা দিয়ে সহযোগিতা করতে থাকে। হতদরিদ্র রিকশাচালক আবদুর রউফ ও তার স্ত্রী বিষয়টিকে মানবিকতা হিসেবেই মেনে নেয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে হাসপাতালের প্রসূতি ওয়ার্ডের কর্তব্যরত সেবিকা ওষুধের স্লিপ দিলে আব্দুর রউফ ওষুধ কিনতে বেরিয়ে যান। তার ফিরতে দেরি দেখে ওই সেবিকা পুনরায় স্লিপ দিয়ে ওষুধ আনার জন্য তাগাদা দেয়। এসময় ওই অপরিচিত নারী নবজাতক শিশুকে কোলে নিয়ে ওষুধ কিনে আনার ভান করে ওয়ার্ড থেকে বের হয়ে যান। আর এই যাওয়ার পরই সদ্যজাত শিশুসহ নিখোঁজ হন ওই নারী। আবদুর রউফ ফিরে এসে এই ঘটনা জেনে  হাসপাতালের সামনের সকল ওষুধের দোকান তন্ন তন্ন করে খোঁজেও পাননি ওই নারীকে। এদিকে, সন্তান হারিয়ে প্রসূতি মা এখন পাগলপ্রায়।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছেন, যেভাবে মহিলাটি তাদের দেখাশুনা করছিলো তাতে মনে হয়েছে তিনি রোগীর নিকটাত্মীয়। অন্যদিকে, রোগীর লোকজন মনে করেছেন ওই মহিলা হাসপাতালের লোক।

মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply