কুমিল্লার দেবিদ্বারে স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেন রাজী ফখরুল ও রোশন আলী মাষ্টার

এম.এ হোসাইন:–
কুমিল্লা-৪(দেবিদ্বার) আসনের আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়নে বঞ্চিত হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেন দেবিদ্বার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রাজী মোহাম্মদ ফখরুল ও আলহাজ্ব রোশন আলী মাষ্টার।
জানা যায়, গত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৮দল থেকে আওয়ামীলীগে যোগদান করা নেতা এবিএম গোলাম মোস্তফাকে আওয়ামীলীগের প্রার্থী করা হয় এবং সংসদ সদস্য হিসেবেও নির্বাচিত করা হয়। কিন্তু গোলাম মোস্তফা নির্বাচীত হয়ে আওয়ামীলীগের তৃণমূল নেতাকর্মীদের মুল্যায়ন না করে তার সাথে জাতীয় পাটি থেকে আসা নেতাদেরকে মুল্যায়ন করেন। তাই নিয়ে দেবিদ্বারে মহাজোট সরকারের পাঁচ বছর অতিক্রম করে বিভিন্ন প্রকার গুপিং এর মাধ্যমে। মূলদল সহ অঙ্গ-সংগঠন বিভক্ত হয়ে পরে তিন ভাগে। ওই তিন গুপের নেতৃত্ব দেন এমপি এবিএম গোলাম মোস্তফা, উপজেলা চেয়ারম্যান রাজী মোহাম্মদ ফখরুল ও রোশন আলী মাস্টার। আর এই গুপিং এর সম্পূর্ন প্রভাব পরে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে। এ আসন থেকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রার্থী হন আট জন। কিন্তু মনোনয়ন পেলেন সাংসদ আলহাজ্ব এবিএম গোলাম মোস্তফা।
অবশেষে মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে দলের শক্তিশালী গুরুপ দুটিকে নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেন
রাজী মোহাম্মদ ফখরুল ও রোশন আলী মাস্টার।
গতকাল সোমবার (২ডিসেম্বর) দুপুরে কুমিল্লা জেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে স্বতন্ত্র  প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন ফরম জমা করেন আলহাজ্ব রোশন আলী মাষ্টার এবং বিকালে দেবিদ্বার উপজেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে রাজী মোহাম্মদ ফখরুল এর পক্ষে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন ফরম জমা দেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আলহাজ্ব আবুল কাসেম ওমানী।
এদিকে ওই দুই স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ এ আসনে চারজন মনোনয়ন পত্র জমা দেন। বাকি দুইজন হলো- আওয়ামীলীগের আলহাজ্ব এবিএম গোলাম মোস্তফা ও জাতীয় পার্টির অধ্যাপক ইকবাল হোসেন রাজু।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...