ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) আসনে নৌকার মাঝি এডভোকেট মোহাম্মদ ছায়েদুল হক এমপিই

আকতার হোসেন ভুইয়া,নাসিরনগর :–
সকল জল্পনা কল্পনা শেষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) আসনে আওয়ামীলীগের নৌকার মাঝি হলেন বর্তমান সংসদ সদস্য এডভোকেট মোহাম্মদ ছায়েদুল হক। এ আসনে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে শুক্রবার সন্ধ্যায় আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এ ঘোষনা। দলীয় মনোনয়নের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর সৃষ্টি হয় আওয়ামীলীগ ঘরনায় নিবাচর্নী আমেজ। নিবার্চন কমিশন তফসিল  ঘোষনার আগেই আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন পেতে এ আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য এডভোকেট মোহাম্মদ ছায়েদুল হক, তাঁর ভাগিনা যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এ কে এম মোঃ আলমগীর, কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সহ-সভাপতি এম এ করিম, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান লেঃ অবঃ গোলাম নূর,তার মেয়ের জামাই কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের অর্থ সম্পাদক শিল্পপতি মোঃ নাজির মিয়া, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য বিএম ফকরুল আলম সফিক, লন্ডন মহানগর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সৈয়দ এহসানুল হক ও সাবেক সংসদ সদস্য এস এম সাফি মাহমুদসহ  ৮ জন প্রার্থী আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন পত্র জমা দেন। এরপর আওয়ামীলীগের পালামেন্টরি বোর্ড চুলচেরা বিশেষণ করে শুক্রবার সন্ধ্যায়কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বর্তমান সংসদ সদস্য এডভোকেট মোহাম্মদ ছায়েদুল হককে দশম জাতীয় সংসদ নিবার্চনে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে ঘোষনা করেন।
আওয়ামীলীগ প্রার্থী এডভোকেট মোহাম্মদ ছায়েদুল হক  হাইকোর্ট ও সুপ্রিম কোর্টের খ্যাতনামা আইজীবী। পিতা মরহুম সুন্দর আলী । ১৯৪২ সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার পূর্বভাগ ইউনিয়নের পূর্বভাগ গ্রামে জম্মগ্রহন করেন। ১৯৬৮ সালে এম এ (অর্থনীতি) ও ৭০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলবি পাস করেন। ছাত্র জীবনে ছাত্রলীগের মাধ্যমে রাজনীতিতে পর্দাপণ করেন। ১৯৬৫-৬৬ সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদে ছাত্রলীগের প্যানেলে ভিপি নিবার্চিত হন। একাত্তুরের স্বাধীনতা যুদ্ধে একজন সাহসী মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহন করেছেন।  ১৯৭৩ সালে আওয়ামীলীগের টিকেটে সংসদ সদস্য নিবার্চিত হয়েছেন। ১৯৮৬ সালের নিবার্চনে পরাজিত হয়েছেন। ১৯৯১ সালে দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে স্বতস্ত্র নিবার্চন করে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেন। এ নিবার্চনে অংশগ্রহন করায় তাকে দল থেকে বহিস্কার করা হলেও পরে বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়। ১৯৯৬ ,২০০১ ও ২০০৮ সালের নিবার্চনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসাবে অংশগ্রহন করে সংসদ সদস্য নিবার্চিত হন। তিনি বর্তমান আওয়ামীলীগের শাসনামলে নাসিরনগরে ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। এ আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৯২ হাজার  ৫৭২ জন।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply