কুমিল্লার মুরাদনগরে মামলা নিয়ে পুলিশের অর্থ বানিজ্য

মো: মোশাররফ হোসেন মনির, মুরাদনগর(কুমিল্লা) :—
কুমিল্লা জেলার মুরাদনগরে ৩ টি মামলা নিয়ে অর্থ বানিজ্যে নেমেছে মুরাদনগর থানা পুলিশ। বিরোধী রাজনৈতিক নেতাকর্মী, সাংবাদিকতো রয়েছেই, স্থানীয় ব্যবসায়ীসহ নিরপরাধ অনেক মানুষকে এ মামলা গুলোতে জড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে পুলিশ মোটা অঙ্কের অর্থ আদায় করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। পুলিশের হয়রানির ভয়ে উপজেলা কয়েকটি গ্রামে এখন পুরুষ শূন্য এবং উপজেলার অনেক মানুষ পালিয়ে বেড়াচ্ছে।
স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, গত বুধবার থেকে মুরাদনগরে এই অবস্থা চলে আসছে। ওইদিন বিকেলে ১৮ দলীয় জোটের মিছিল ছিলো। ওই মিছিলে পুলিশ ও সরকার সমর্থকদের সঙ্গে ১৮ দলীয় জোটের নেতা-কর্মীদের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। পুলিশ সেখানে কয়েকশ’ রাউন্ড গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। এই ঘটনায় মুরাদনগর থানায় তিনটি পৃথক মামলা দায়ের করা হয়। মামলায় ২০৬ জনের নাম উল্লেখ সহ বহু সংখ্যক অজ্ঞাতনামা আসামী করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে পুলিশ প্রতিটি ঘরে ঘরে হানা দিয়ে বাড়ি-ঘরেও ব্যাপক ভাংচুর করে পুরো এলাকায় চরম আতঙ্ক ছড়িয়ে দিয়েছে। মামলা গুলো নিয়ে পুলিশ এখন বানিজ্যে নেমেছে। ঐ ঘটনার সময় পুলিশের সাথে থেকে খবর সংগ্রহ করা সাংবাদিক দেরকেও ছার দেওয়া হচ্ছেনা এছারা অনেক নিরপরাদ দরে এনে ভয় দেখিয়ে  তাদের কাছথেকে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে লাক্ষ লাক্ষ টাকা। মামলা দায়ের করে এখন বিরোধী দলের নেতাকর্মী, সাংবাদিক ও স্থানীয় ব্যবসায়ী, ধনাঢ্য ব্যাক্তিসহ নিরপরাধ অনেক মানুষকে হয়রানী করে চলছে। হয়রানি এড়াতে অনেকেই এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।
এ ব্যপারে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আমিরুল ইসলাম জানান, ওসব কথা মিথ্যে। সবাই বিএনপির লোক, তাই সবাই মিথ্যা কথা বলছে। তিনি বলেন, মামলার আসামী খুঁজতে যাওয়াটা স্বাভাবিক। কোন নিরীহ মানুষের বাড়ি-ঘর ভাংচুরের প্রমাণ নেই বলে তিনি উল্লেখ করেন। ওসি জানান, ঘটনার সময় তাদের একটি অস্ত্রও লুট হয়েছিলো। পরে সেটি পুকুর থেকে উদ্ধার করা হয়।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply