প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হল হিন্দুদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গাপূজা

সৈয়দ আহাম্মদ লাভলুঃ–

কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই শান্তিপূর্ণ ভাবে ব্রাহ্মণপাড়ার সবকয়টি পূজামন্ডপের প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে হিন্দুদের ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গাপূজা। উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ প্রশাসনের সার্বক্ষণীক তদারকীর কারনে উপজেলার ১২ টি পূজা মন্ডপে হিন্দুরা নির্বিগ্নে তাদের ধর্মীয় উৎসব পালন করেছে। উপজেলার যেসব ১২টি পূজা মন্ডবে পূজা উদযাপিত হয়েছে সেগুলো হল- মাধবপুর পুস্কুনীপাড় পূজামন্ডব, মকিমপুর অনিলশাহর বাড়ী, ষাইটশালা কুমারবাড়ী, চান্দলা রামকৃঞ্চ সেবা আশ্রম, উত্তর চান্দলা পরিমল টেইলার বাড়ী, চান্দলা বিপিং বণিক বাড়ী, উত্তর চান্দলা আদি শিব মন্দির, শশীদল সূত্রদর বাড়ী, নন্দীপাড়া তমালতলা পূজামন্ডব, সাহেবাবাদ খিতিশ সাহার বাড়ী, রামনগর আদাগুবিন্ধ মন্দির, নন্দীপাড়া সূত্রধর বাড়ী। পূজা মন্ডবগুলি বিভিন্ন সময়ে পরিদর্শন করেছেন ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক হাজী জাহাঙ্গীর খাঁন চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আজিজুর রহমান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তাহমিনা হক পপি, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট দেওয়ান আবদুল জলিল, মহাজোট থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী ব্যারিষ্টার সোহরাব খাঁন চৌধুরী, ব্রাহ্মণপাড়া বিএনপির সদস্য সচিব শাহআলম খোকন, সাংগঠনিক দায়িত্বে আমির হোসেনসহ বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ। উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি সজিব কুমার রায় ও সেক্রেটারী কিশোর কুমার দাস এ প্রতিনিধিকে জানান, উপজেলার বিভিন্ন পূজা মন্ডবে কোথাও কোন অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটেনি। বিভিন্ন পূজা মন্ডবের কমিটির সদস্যসহ প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগীতা পেয়েছেন বলে তারা জানান। বিশেষ করে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উত্তম কুমার বড়–য়ার সার্বিক সহযোগীতার তারা প্রশংসা করেন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply