মতলব খেয়াঘাট থেকে গাজীপুর পাঁকা রাস্তার জড়াজীর্ন হাল : দেখার কেউ নেই

শামসুজ্জামান ডলার :–

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার মতলব ফেরীঘাট অঞ্চল থেকে গাজীপুর পাঁকা রাস্তার ১কিলোমিটার জড়াজীর্ন অবস্থায় পরে আছে দীর্ঘ্যদিন যাবৎ। সড়ক ও জনপদ বিভাগের এই রাস্তাটি চলাচলের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন। প্রতিদিন এপথে অসংখ্য যানবাহন চরম দুর্ভোগের মধ্যদিয়ে যাতায়াত করতে বাধ্য হচ্ছে। এই দুর্গম ও জড়াজীর্ন রাস্তাদিয়ে চলার সময় জসিম উদ্দিন, আশেক উল্যাহ, শহীদ মিয়া, আঃ রহমান, মাসুদ নামক কয়েকজন অটোরিক্সা (সিএনজি) চালকের সাথে কথাহলে তারা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করে বিভিন্ন ধরনের কথা বলেন। ক্ষুব্ধ ঐ চালকরা বলেন, এই রাস্তা দিয়া গাড়ি চালানের পরে যাত্রীরা আমিগো সাথে খারাপ ব্যবহার ও গালাগালি করেন। এই রাস্তাদিয়া গাড়ি চালাইয়া আমগো জানডাও শেষ। কয়দিন পর পরই গাড়ির বিভিন্ন যন্ত্রপাতি বদলাইতে অয়। কাঁচা রাস্তা ভাংলে হেই রাস্তা দিয়া গাড়ি চালাইতে যে কি কষ্ট ভাই জানেন না। আমগো অনেক শখ যদি এমপি সাব আমগো অটোরিক্সায়(সিএনজি) উঠাইয়া এই রাস্তা দিয়া একবার যাইতেন। তয় বোধহয় উনি আমগো কষ্টটা বুঝতেন এবং রাস্তাডা ঠিক করার ব্যবস্তা কইরা দিতেন। গত ১ বছরেরও বেশী অইবো রাস্তাডা ভাইংগা-চুইরা বড় বড় গর্ত অইয়া রইছে। মাঝেমধ্যে আমগো টেকায় আমরা এই রাস্তার বড়বড় গর্তের মধ্যে কিছু ইট ফালাইয়া লই, যাতে কইরা কোন রকমে চলতে পাড়ি।

চরমাছুয়া গ্রামের ছালাউদ্দিন বলেন, গত কয়েকদিন আগে আমরা এ্যম্বুলেন্সে মতলব সদর হাসপাতালে রোগী নিতেগিয়ে বুঝলাম এই জরাজীর্ন পাঁকা রাস্তাটি আমাদের জন্য যে কতটা অভিশাপের। সড়ক ও জনপদ বিভাগের মতলব ফেরীঘাটের মোড় থেকে পশ্চিম দিকে গাজীপুর সড়কের ১কিলোমিটার জড়াজীর্ন পাঁকা রাস্তার কারনে মতলব দক্ষিন উপজেলা পরিষদ, মতলব বাজার, মতলব সদর হাসপাতাল, মতলব কলেরা হাসপাতাল, মতলব ডিগ্রী কলেজ, রয়মনেননেছা মহিলা ডিগ্রী কলেজ ও চাঁদপুর জেলা সদরে যাতায়াতের জন্য এই রাস্তাটি খুবই গুরুত্বপূর্ন। তাছাড়া রাস্তাটি গুরুত্বপূর্ন বলেই রাস্তার পশ্চিম পাশেই রয়েছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন মতলব উত্তর-দক্ষিন সংযোগ ফেরী।

এব্যপারে মুঠোফোনে সড়ক ও জনপদ বিভাগের চাঁদপুরের নির্বাহী প্রকৌশলীকে কয়েকবার ফোন করলেও তিনি রিসিভ না করার কারনে তাঁর বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply