ছেংগারচরে দু’গ্রামবাসীর আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে আহত ১৫ ॥ ১০ রাউন্ড টিয়ারসেল, ৫ রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ : ১৪৪ ধারা জারি

মতলব উত্তর প্রতিনিধি :–

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর বাজারে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত ১৫ জন। সংঘর্ষের পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন।
শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে সংঘর্ষ বাঁধে। এরপর দুপুর ১২টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) একেএম মনিরুজ্জামান ১৪৪ ধারা জারি করেন।
মতলব উত্তর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খান মোহাম্মদ এরফান জানান, বুধবার ছেংগারচর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে শিকিরচর ও আদুরভিটি গ্রামের কয়েকজন ছাত্রের কথা কাটাকাটি হয়। এ বিষয়টি পরে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি করে। এ নিয়ে গত ৩দিন ধরে দফায় দফায় সংঘর্ষ ও উত্তেজনা বিরাজ করছিল।
ঘটনার জের ধরে শুক্রবার সকালে দুই গ্রামবাসী আবারও সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় হামলা করে বাজারের কয়েকটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর করা হয়। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১০রাউন্ড টিয়ারসেল ও ৫রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। মোহনপুর নৌ-পুলিশ ফাঁড়ি ও চাঁদপুর থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ফোর্স এনে ছেংগারচরে মোতায়েন করা হয়। ফের সংঘর্ষ এড়াতে শুক্রবার দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ওই এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।
বিকেলে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেন- চাঁদপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক (এডিএম) মাসুদ আলম সিদ্দিক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সৈকত শাহীন। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণসহ সমাধানের জন্য মতলব উত্তর থানায় আদুরভিটি, শিকিরচর ও আশপাশের গ্রামের গন্যমান্য লোকজন নিয়ে আলোচনায় বসেন। (আজ) শনিবার সকালে দু’গ্রামের লোকজন নিয়ে বসে মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী অফিসার একেএম মনিরুজ্জামান, ওসি খান মোহাম্মদ এরফানসহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও সামাজিক গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সমাধানের লক্ষ্যে আলোচনা বসবেন। এ আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে সন্ধ্যা ৬টায় ১৪৪ধারা প্রত্যাহার করা হয়।

Check Also

যে কোনো আন্দোলন-সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে : বিএনপি

চাঁদপুর প্রতিনিধি :– চাঁদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সাধারণ সভায় বক্তারা বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম ...

Leave a Reply