নাসিরনগরের দূর্গাপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান ॥ শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উদ্বিগ্ন

আকতার হোসেন ভুইয়া,নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) :–

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার ভলাকুট ইউনিয়নের দূর্গাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পুরনো একমাত্র ভবনকে পরিত্যক্ত ঘোষনা করায় খোলা জায়গায় কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পাঠদান কার্যক্রম চলছে। এতে বিদ্যালয়ের কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। দূর্গাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রায় চান দাস জানান, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বিদ্যালয়ের একমাত্র ভবনটিকে ব্যবহারের অনুপযোগী ঘোষনা করা হয়েছে। ফলে শ্রেণী কক্ষের অভাবে খোলা জায়গায় পাঠদান হচ্ছে। একটু ঝড়-বৃষ্টি হলেই বিদ্যালয়ের পাঠদান ব্যাহত হয়। অতিরিক্ত ভবন না থাকায় বাধ্য হয়েই ঝুকিঁপূর্ণ ভবনের বারান্দায় ক্লাস নিতে হচ্ছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, বিদ্যালয়ের ২১০ জন ছাত্রছাত্রির জন্য ৪ জন শিক্ষক থাকলেও শ্রেনী কক্ষের অভাবে ক্লাস নিতে পারছে না। তবে বিদ্যালয়ের পাশেই খোলা আকাশের নিচে পাঠদান চলছে । ঝুকিঁপূর্ণ ভবনের ছাদ ও দেয়ালের পলেস্তারা খসে লোহার রড বেবিয়ে গেছে। বিদ্যালয়ের ছাদের ভিম ও দেয়াল ফাটল ধরেছে। বিদ্যালয়ে জরার্জীণ একমাত্র ভবনের ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ায় শিক্ষার্থীরা বারান্দায় বসে ক্লাস করতেও ভয় পায়। স্থানীয় ইউপি সদস্য নীলকমল দাস জানায়, বিদ্যালয়ের ভবনের অবস্থা সম্পর্কে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবগত করা হয়েছে। তিনি শিক্ষকদের ঝুকিঁপূর্ণ ভবনে ক্লাস না নিতে নিষেধ করেছেন। কিন্তু বিকল্প ব্যবস্থা না থাকায় ঝড়-বৃষ্টি হলেই শিক্ষকরা বাধ্য হয়ে বিদ্যালয়ের ঝুঁিকপূর্ণ ভবনের বারান্দায় শিক্ষার্থীদের পাঠদান করাতে হচ্ছে । তবে এ বিদ্যালয়ের ভবন পুনঃ নিমার্ণের উদ্যোগ নেয়া না হলে পরিত্যক্ত ভবনটি যেকোন সময় ভেঙ্গে পড়ে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থী- অভিভাবক মহল। উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা সামিহা ফেরদৌসী সত্যতা স্বীকার করে জানায় ঝুকিঁপূর্ণ ভবনে ক্লাস না নিতে নিষেধ করা হয়েছে। উপজেলা শিক্ষা অফিসার (চলতি দায়িত্ব) মোঃ হেমায়েতুল ফারুক ভূঞা জানান, দূর্গাপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবনকে ব্যবহারের অনুপযোগী ঘোষনা করা হয়েছে । উপজেলার ঝুকিঁপূর্ণ ও ব্যবহারে অনুপযোগী ২৪টি বিদ্যালয়ের তালিকা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে পাঠানো হয়েছে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ভবনগুলো দ্রুত সংস্কার বা নতুন ভবন নির্মাণের সুপারিশ করা হয়েছে।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply