দাউদকান্দিতে নবম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ

শামীমা সুলতানা :–
বৃহস্পতিবার বিকেলে কুমিল্লা দাউদকান্দির নয়ানগর গ্রামের নবম শ্রেণীর ছাত্রী শিখা আক্তারকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, দাউদকান্দি উপজেলার নয়ানগর গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের ১৪ বছরের কিশোরী কন্যা চাঁদপুর মতলব (উঃ) ধনাগোদা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী শিখা আক্তারকে পাশের বাড়ির কালু মিয়ার ছেলে স্বপন (৩৫) ধর্ষণের পর হত্যা করে।
স্থানীয় ইউপি মেম্বার সাইফুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার শিখা আক্তারের মা-বাবা শিখা ও তার ছোট বোন পপি আক্তার (৮) কে বাড়িতে রেখে অন্যত্র বেড়াতে যায়। আলাদা বাড়িতে নির্জনতার সুযোগ বুঝে বিকেলে পাশের বাড়ির স্বপন (৩৫) জোরপূর্বক ঘরে ঢুকে শিখাকে ধর্ষণ করে। কিছুক্ষণ পর স্বপন ঘর থেকে বেড়িয়ে গেলে শিখার ছোট বোন পপি ঘরে ঢুকে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় বোনের ঝুলন্ত লাশ দেখে চিৎকার শুরু করলে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে পুলিশকে না জানিয়ে ঝুলন্ত শিখার লাশ নামিয়ে ফেলে। শিখার অভিভাবকরা অভিযোগ করেন, স্থানীয় একদল কুচক্রি মহল একত্রিত হয়ে শলাপরামর্শ করে শিখার এ ঘটনাটি ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে। আজ সকালে দাউদকান্দি থানার এসআই মজিবুর রহমান খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ থানায় নিয়ে আসেন। লাশ ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply