তিতাসের যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মেঘনায় মাদক মামলা ॥ এলাকায় তোলপাড়

নাজমুল করিম ফারুক :–

তিতাসের যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মেঘনায় ইয়াবা ব্যবসায়ী হিসেবে মামলা হওয়ায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।
মেঘনা থানা সূত্রে জানা যায়, শনিবার সন্ধ্যায় তিতাস উপজেলার ইয়াবা ব্যবসায়ী বাতাকান্দি গ্রামের শহিদ মিয়ার ছেলে বিল্লাল হোসেন (৩০), উত্তর আকালিয়ার সিরাজুল ইসলামের ছেলে জনি (২৫) এবং নয়াকান্দি গ্রামের আমির মিয়ার ছেলে আল আমিন (২৪) মেঘনার কাশিপুর ট্রলারঘাটে মেঘনার আমিরাবাদ গ্রামের নুরুল আলম (৩০), শিকির গাঁও গ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে আবুল হোসেন (২৮) এবং একই গ্রামের কেরামত আলীর ছেলে সবুজ মিয়া (৩২) এর নিকট ৫০ পিস ইয়াবা বিক্রি করতে এলে গোপন সূত্রের ভিত্তিতের মেঘনা থানার এএসআই মনির হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে ৫০ পিস ইয়াবা ও জনি, আল আমিন ও নুরুল আলমকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। অপর আসামিরা দৌড়ে পালিয়ে যায়। উক্ত ঘটনায় এএসআই মনির হোসেন বাদী হয়ে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৬ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের (মামলা নং-০৭, তারিখ ঃ ১৭ সেপ্টেম্বর) করে। উক্ত মামলায় বিল্লাল পলাতক হিসেবে থাকলেও সে এখন তিতাসের বাতাকান্দি বাজারে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে এবং ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। উল্লেখ্য, তিতাস উপজেলার জগতপুর ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেনকে গত ৬ সেপ্টেম্বর তিতাস থানা পুলিশ (অন্যের স্বীকারোক্তিতে) গ্রেফতার করলেও বিল্লাল মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত নয় এমন দাবীতে ছেড়ে দেয়া হয়। কিন্তু মেঘনা থানায় ইয়াবা বিক্রির অপরাধে মামলা হওয়ায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এ ব্যাপারে বিল্লাল হোসেনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ব্যবসা করতে গেলে সমস্যা থাকবেই।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply