যৌতুক না পেয়ে দ্বিতীয় বিয়ে, ব্রাহ্মণপাড়ায় স্ত্রীর নারী নির্যাতন মামলায় স্বামী কারাগারে

সৈয়দ আহাম্মদ লাভলুঃ–
দাবিকৃত যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে শারীরিক নির্যাতন ও প্রথম স্ত্রীর অনুমতি না নিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করার অভিযোগে গত শনিবার ১৪ সেপ্টেম্বর স্বামী আবুল হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে ব্রাহ্মণপাড়া থানা পুলিশ। রোববার তাকে কুমিল্লা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ২০০৭ সালে কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার রাজনগর গ্রামের আবদুল জলিলের ছেলে আবুল হোসেনের সাথে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার চারিপাড়া গ্রামের আবদুর রহিম সরকারের মেয়ে কাজল আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের সময় দুই লাখ টাকা যৌতুক দাবি করা হয়। বিয়ের পরে এক লাখ টাকা পরিশোধ করা হয়। দাবিকৃত বাকি এক লাখ টাকা না পেয়ে কাজল আক্তারের উপর প্রায়ই শারিরীক নির্যাতন করা হতো। ইতিমধ্যে তাদের দুটি সন্তান জান্নাত আক্তার (৫) ও ফাহিম হোসেন (৩) জন্ম হয়। গত এক বছর আগে আবুল হোসেন প্রথম স্ত্রীর অনুমতি না নিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। কিছুদিন পূর্বে কাজল আক্তারের বাবার নিকট স্বামী দুই লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। যৌতুক না পেয়ে তাকে শারীরিক নির্যাতন করে দুই সন্তানসহ তার বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেন বলে কাজল আক্তার অভিযোগ করেন। পরে তিনি নারী নির্যাতন আইনে গত ১০ সেপ্টেম্বর ব্রাহ্মণপাড়া থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় স্বামীসহ ছয়জনকে আসামি করা হয়। গত শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধায় মামলার প্রধান আসামি স্বামী আবুল হোসেনকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার বাঙ্গরা গ্রাম থেকে ব্রাহ্মণপাড়া থানার এসআই জাকির হোসেন ও সঙ্গীয় ফোর্স তাকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উত্তম কুমার বড়ুয়া বলেন, ১৫ সেপ্টেম্বর রোববার আসামীকে আদালতের মাধ্যমে কুমিল্লা কেন্দ্রিয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply