মুরাদনগরে ১২০ কোটি টাকা মূল্যের সরকারী জায়গা দখলের মহোৎসব চলছে : হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা

মো: মোশাররফ হোসেন মনির, মুরাদনগর :–
কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার প্রানকেন্দ্রে মুরাদনগর-কোম্পানীগঞ্জ সড়কের দক্ষিনে ও উপজেলা পরিষদের দক্ষিন-পশ্চিমে জেলা পরিষদের তিন’শ শতক ভূমি যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ১২০ কোটি টাকা মূল্যের সরকারী ভূমি দখলের মহোৎসব চলছে। প্রশাষনের নাকের ডগায় বর্তমান ক্ষমতাশীন দলের কয়েক ব্যাক্তি ও কিছু ভ’মিদ্যসু অবৈধ ভাবে ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে নিজেদের আখের গোছাতে জেলা পরিষদের ওই ভূমি দখল করার পায়তারাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় লোকজনের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। তবে সরকারি সম্পদ রক্ষায় প্রশাসনের লোকজন টু শব্দটি ও করছে না। মোটা অংকের টাকা লেনদেনের মাধ্যমে জেলা পরিষদ সহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের লোকজন নিরব ভ’মিকা পালন করে আসছে। প্রশাসনের এ রহস্যজনক ভূমিকার কারনে সরকারের প্রায় ১২০ কোটি টাকা মূল্যের ভূমি হাত ছাড়া হয়ে যাচ্ছে।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, মুরাদনগর উপজেলার প্রাণ কেন্দ্রে উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন মুরাদনগর-কোম্পানীগঞ্জ সড়কের দক্ষিনে জেলা পরিষদের ৭২ নং রহিমপুর মৌজার ৫৩৬, ৫৩৭ ও ৫৩৮নং দাগ সহ আরো কিছু দাগের ৩০০ শতক ভূমি দখল করার লক্ষে বর্তমান ক্ষমতাশীন আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী নেতারা নিজেদের আখের গোছাতে গোমতী নদী দিয়ে ইজ্ঞিন চালিত নৌকায় বালু এনে ড্রেজার দিয়ে রাতা-রাতি ভরাট করে মার্কেট করার চেষ্টা চলছে। বর্তমানে এ জায়গার কিছু অংশে অস্থায়ী ভাবে কিছু দোকান পাট থাকলেও দক্ষলকৃত কিছু ভ’মিদ্যসু সন্ত্রাসী ওই দোকানদারদেরকে দোকানের জায়গা ছেড়ে দিতে হুমকি প্রদান করে আসছে। ইতিমধ্যে দোকান বরাদ্দ দেওয়ার নাম করে কিছু কিছু লোকের নিকট হতে ওই চক্রটি লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।
মাটি দিয়ে ভরাটকারীরা জানায় তাদের লোকজন জেলা পরিষদ হতে জায়গাটি ৫ জনের নামে লিজ নিয়ে এসেছে। লিজধারী মুরাদনগর উত্তরপাড়ার আ: বারেক মিয়ার ছেলে মো: হাছান জানায় জেলা পরিষদ আমার নামে লিজ দিয়েছে কি না তা আমি জানি না। কারা ওই জায়গাটি ভরাট করছে তাও আমি জানি না তবে জেলা পরিষদের এক লোক আমাকে দোকান দেওয়ার কথা বলেছে।
মুরাদনগর সদর ইউ পি চেয়ারম্যান ও আ’লীগের ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন পন্থী হিসাবে পরিচিত মোস্তাক আহাম্মদ মাসুদ জানায়, আমি এর সাথে জড়িত নই তবে আমাকে ওই জায়গা হতে ১৫টি দোকান দেওয়ার দাবী করেছি। এ বিষয়ে কুমিল্লা উত্তর জেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার ও নবীপুর পশ্চিম ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শাহ আলম ভাল বলতে পারবেন।
এ বিষয়ে মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: আনিসুজ্জামান খান জানান এ ব্যাপরে আমি কিছুই জানি না।
কুমিল্লা জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী অফিসার মো: আবদুল আজিজের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ওই ভ’মি ভরাট করার কথা জানেন তবে ওই ভ’মিতে জেলা পরিষদ নিজ উদ্যোগে মার্কেট নির্মান করবে এর বেশী কিছু বলতে পারব না।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply