কুমিল্লার তিতাস মাতালেন মনির খান ন্যান্সি বাপ্পি রাজ ও চৈতি

নাজমুল করিম ফারুক,তিতাস :-

কুমিল্লার তিতাসে গাজীপুর খাঁন হাইস্কুল এন্ড কলেজ মাঠে গান গেয়ে দর্শকদের মাতালের মনির খান, ন্যান্সি এবং মায়াবী ব্যান্ডের বাপ্পি রাজ ও চৈতি। গতকাল উপজেলা বিএনপির ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠানে তারা সংগীত পরিবেশন করেন।
অনুষ্ঠানের শুরুতে মায়াবী ব্যান্ডের প্লেব্যাক মাওলা খ্যাত বাপ্পি রাজ ও উপমা চৈতি গান গেয়ে দর্শকদের মাতিয়ে রাখেন। এক পর্যায়ে মঞ্চে আসেন তরুণ প্রজন্মের জনপ্রিয় গায়কা ন্যান্সি। আকাশে কান পেতে থাকি, বাহির বলে দূরে থাকে, আমি তোমার মনের ভেতর, হাওয়াই হাওয়াই দোলনা দোলে গানগুলো গেয়ে যখন দর্শকদের আনন্দ দিচ্ছেন তখন মনে হয়েছিল মা-হারা ব্যাথ্যাটা এখনোও কেটে উঠতে পারেনি ন্যান্সি। তার পর মঞ্চে আসেন মধু ছন্দা। মধু ছন্দা গান গেয়ে যখন ক্লান্ত তখন মঞ্চে আসেন গ্রাম বাংলার অঞ্জনা খ্যাত আরেক জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী মনির খান। দর্শকদের অনুরোধে একে একে গেয়ে যান ও বিধি, ও সাথী একবার এসে, তোমার জন্মদিনে, সে যদি পাইরে খবর, বাবা তোমার ছেলে, ৩৬/এ, আমি শিশু ছিলাম, এই সেই ঘর, সাদা কাপড় পড়লে গানগুলো। অনুষ্ঠানের শেষপ্রান্তে মনির খান উপমা চৈত্রির সাথে প্রেমের তাজমহল এবং মধু ছন্দার সাথে আমার গরুর গাড়ীতে বউ সাজিয়ে সত্যিই উপস্থিত দর্শকদের মাঝে আনন্দের বন্যা ছড়িয়ে দেন। এসময় বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য এমকে আনোয়ারসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের বিএনপির নেতৃবৃন্দের মধ্যে আক্তারুজ্জামান সরকার, মনিরুল হক তপন ভূঁইয়া, আক্তারুজ্জামান আক্তার, আলী হোসেন মোল্লা, সালাহ উদ্দিন সরকার, ওসমান গণি ভূঁইয়া, ইঞ্জিনিয়ার আঃ লতিফ সরকার, মেহেদী হাসান সেলিম, জহিরুল ইসলাম জাদু উপস্থিত ছিলেন। উক্ত অনুষ্ঠানে স্থানীয় শিল্পীদের মধ্যে গান পরিবেশন করেন জাকির হোসেন, সালাউদ্দিন আহমেদ, বিথী আক্তার ও রিমা আক্তার।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply