দেবিদ্বারের রাজামেহার মাদ্রাসায় পুনরায় হামলা, ভাংচুর

স্টাফ রিপোর্টার :–

কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার রাজামেহার ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় সন্ত্রাসীরা পুনরায় হামলা চালিয়ে দুই লাখ টাকার ক্ষতিসাধন করেছে। পুলিশের উদাসীনতার ফলে সন্ত্রাসীরা পুনরায় এ ঘটনার সাহস পাচ্ছে বলে এলাকার বিভিন্ন পেশাজীবী মহল মনে করছেন। পর পর দু’বার এ ঘটনার ফলে মাদরাসার শিক্ষক-কর্মচারী ও গভার্নিং বডির সদস্যরা চরম নিরাপত্বাহীনতায় দিনাতিপাত করছে। বাধ্য হয়ে মাদরাসা কর্তৃপক্ষ বিষয়টির ব্যাপারে পুলিশ সুপারের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।
সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, মাদরাসার ৯ শতক ভূমি মৃত আব্দুর রব মুন্সী ও আলী আজ্জম মুন্সীর ওয়ারিশরা দীর্ঘ ২২ বছর যাবত জবরদখল করেছিল। মাদরাসার গভর্নিং বডিসহ এলাকাবাসীর চেষ্টায় ১ লাখ টাকা ব্যয় দিয়ে ভূমিটি মাদরাসার দখলে আনা হয়। বর্তমানে উদ্ধারকৃত ওই জায়গায় মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা আব্দুর রাওফ আমজাদ হোসাইন ৪০ লাখ টাকা ব্যয়ে ৪ তলা ফাউন্ডেশান বিশিষ্ট একটি বিল্ডিং নির্মাণ কাজে হাত দিয়ে ইতিমধ্যে ১ম তলার কাজ শেষ করেন। বিল্ডিং করার পূর্বে কয়েক দফা বৈঠক করে জবরদখল কারীরা বাড়ি থেকে বের হবার জন্য নতুন বিল্ডিংয়ের উত্তর পাশ দিয়ে ৭ ফুট পাশে ৫৫ ফুট লম্বা একটি রাস্তা দেয়া হয়। বর্তমানে তারা নতুন বিল্ডিংয়ের দক্ষিণ পাশ দিয়ে আবারো একটি রাস্তা দাবি করছে। মাদরাসার মূল ভবন ও ছাত্রাবাসের ভিতর দিয়ে তাদেরকে রাস্তা দেয়ার দাবিটি অযৌক্তিক বলে মাদরাসা কর্তৃপক্ষসহ এলাকার সর্বস্তরের লোকজন এতে রাজি হয়নি। এতে বাঁধ সাদে জবরদখলকারীরা। মঙ্গলবার দুপুরে সন্ত্রাসী কাউছার মিয়ার নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে বোমা ও ককটেল ফাটিয়ে মাদরাসা ভবনে অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে আক্রমন চালায়। এ সময় তারা মাদরাসা ভবনের সাথে করা একটি টাইলস বসানো টয়লেট সম্পূর্ণ ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়। এতে প্রায় দুই লাখ টাকার ক্ষতিসাধিত হয়। উল্লেখ্য, গত ২৯ জুন শনিবার বিকাল অনুমান ৪টায় সন্ত্রাসী কাউছার মিয়ার নেতৃত্বে ১৪/১৫ জন মাদরাসা ভবনে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছিল। ওই ঘটনার ব্যাপারে গভর্ণিং বডির সদস্য আব্দুল আউয়াল বাদী হয়ে কাউছার মিয়াসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গত ৩০ জুন রোববার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছিল। কিন্তু দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও রহস্যজনক কারণে দেবিদ্বার থানা পুলিশ মামলা নেয়নি। এ ব্যাপারে কথা বলার জন্য অভিযুক্ত কাউছার মিয়ার সাথে একাধীকবার যোগাযোগ করেও মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় কথা বলা সম্ভব হয়নি।
দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম মোর্শেদ জানান, আমি নতুন এসেছি। এ ব্যাপারে আমি কিছুই জানিনা। তবে বিষয়টি খোঁজ-খবর নিয়ে দেখব।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply