নিষ্ঠুর দারিদ্র্যতাকে হার মানিয়ে জিপিএ-৫ পাওয়া জাহাঙ্গীর আলম ভবিষৎতে ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন, অর্থ অভাবে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে তার লেখাপড়া

মোঃ জামাল উদ্দিন দুলালঃ–

কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের হতদরিদ্র পরিবারের রমিজ উদ্দিনের পুত্র মোঃ জাহাঙ্গীর আলম দারিদ্র্যতার কারণে তার লেখাপড়া করা অনিশ্চিত হয়ে দাঁড়িয়েছে। পঞ্চম , অষ্টম শ্রেণীতে বৃত্তি লাভ এবং এস.এস.সি ও এইচ.এস.সিতে জিপিএ- ৫ অর্জন করলেও দারিদ্র্যতার কারণে এখন তার লেখাপড়া করানো সম্ভব হচ্ছে না।
এদিকে এলাকাবাসী ও কলেজ সূত্রে জানাযায়, কুরুইন গ্রামের দিনমুজুর রমিজ উদ্দিনের এক ছেলে ও এক মেয়ে। সেই পরিবারের সন্তান জাহাঙ্গীর আলম। যাদের মাথা গোঁজার জন্য ভিটে মাটি ও নেই। অন্যের জায়গায় তাদের বসবাস। এ বিষয়ে তার ছোট বেলার প্রাইমারি স্কুলের সহকারী শিক্ষক মোঃ খোরেশেদ আলম জাহাঙ্গীরকে লেখাপড়া করার উৎসাহ ও সামাজিক আর্থিক সাহায্যে প্রদান করেন। জাহাঙ্গীর এ পযর্ন্ত তার উৎসাহে ২০০৫ সালে পঞ্চম,২০০৮ সালে অষ্টম শ্রেনীতে বৃত্তি লাভ করে। এবং ২০১১ সালে মোহনপুর উচ্চ বিদ্যালয় এস.এস.সিতে বিজ্ঞান শাখায় ও ২০১৩ সালে কুমিল্লা ইবনে তাইমিয়া স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এইচ.এস.সিতে বিজ্ঞান শাখায় জিপিএ- ৫ অর্জন করে।
জাহাঙ্গীরের পরিবারের পরীক্ষার ফলাফলে আনন্দের বন্যা বইলেও তার মা ফিরোজা বেগম কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তিনি বলেন,তার কোন আশা আমি পূরণ করতে পারিনি। আমার স্বামী পরিশ্রম করে যা আয় করেন তা দিয়ে সংসার চালাতে আমাদের খুবই কষ্ট হয়। এর মধ্যে তাকে লেখাপড়া করাব কিভাবে। অনেক সময় ওর বাবা কাজে না গেলে চুলায় আগুন জ্বলে না। তাকে খোরশেদ স্যারের সহযোগিতায় এতদূর এগিয়ে এলেও তার এখন মেডিকেলে ভর্তি হয়ে সু-শিক্ষা কিংবা ডাক্তার হয়ে সমাজের চিকিৎসা করার স্বপ্ন আর কখনো পূরন হবে না। কারণ এখন তার অনেক টাকা লাগবে। কে তাকে সাহায্য করবে? এ বিষয়ে জাহাঙ্গীর আলম “কুমিল্লাওয়েব’কে বলেন, আমার খুবই ইচ্ছা আমি যেন একটি ভালো মেডিকেল কলেজে ভর্তি হয়ে সু-শিক্ষা অর্জন করে ডাক্তার হতে পারি। মা বাবার দু:খ ঘুছাঁতে পারি। ভবিষৎতে আমার দেশের দু:খী মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারলে এটাই হবে আমার জীবনের সবচেয়ে বড় পাওয়া।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply