১২ ও ১৩ আগস্ট জামায়াতের হরতাল

ঢাকা:–

নিবন্ধন বাতিলের প্রতিবাদে ১২ ও ১৩ আগস্ট সোম ও মঙ্গলবার দেশব্যাপী ৪৮ ঘণ্টার লাগাতার সর্বাত্মক হরতালের ডাক দিয়েছে জামায়াত ইসলামী।বৃহস্পতিবার রাতে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান হরতালের ডাক দেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, সংবিধানের ৩৮ অনুচ্ছেদের অধীনে জামায়াত একটি রাজনৈতিক দল হিসেবে কাজ করার অধিকার রাখে। এই অধিকার অব্যাহত আছে। হাইকোর্ট ডিভিশনের একটি বৃহত্তর বেঞ্চে জামায়াতের নিবন্ধন বাতিলের যে রায় ঘোষিত হয়েছে তা একটি ভুল রায়। এ রায়ের মাধ্যমে সরকারের রাজনৈতিক উদ্দেশ্যের প্রতিফলন ঘটেছে। এই রিট আবেদনটি সম্পূর্ণ অপরিপক্ক, কারণ নিবন্ধনের পুরো প্রক্রিয়াটি এখনো নির্বাচন কমিশনের বিবেচনাধীন। এ অবস্থায় রিট চলতে পারে না। ভারত, ইংল্যান্ড এমনকি আমাদের দেশেও এ বিষয়ে উচ্চ আদালতের অনেক নজির রয়েছে। জামায়াতের আইনজীবীগণ সে সব নজির আদালতে উপস্থাপন করেছেন। কিন্তু আদালত সে সব অগ্রাহ্য করেছেন।

রফিকুল ইসললাম খান বলেন, ২০১০ সালের জানুয়ারি মাসে নির্বাচন কমিশন তাদের একটি মেমোতে উল্লেখ করেন যে, দু’টো দল ছাড়া বাকি যে ১১টি দলকে নিবন্ধন দেয়া হয়েছে সবারই গঠনতন্ত্র ত্রুটিপূর্ণ এবং গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ১৯৭২ এর সঙ্গে সাংঘর্ষিক। আদালত জামায়াতে ইসলামীর নিবন্ধন বাতিল করে অন্যান্য দলেরও নিবন্ধন বাতিলের যে দরজা উন্মুক্ত করলেন তা গণতন্ত্র এবং আইনের শাসনের জন্য মারাত্মক হুমকী বলে আমরা মনে করি।

তিনি বলেন, গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় জনগণ সিদ্ধান্ত নেয় তারা কোন দলকে ভোট দেবে। জনগণ প্রতিটি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামায়াতে ইসলামীকে ভোট দিয়ে জামায়াত মনোনিত প্রার্থীদের সংসদে পাঠিয়েছে। বর্তমান সংসদেও জামায়াতের প্রতিনিধিত্ব আছে। বাংলাদেশের পরিবর্তিত সংবিধানেও ‘বিস্মিল্লাহির রাহমানির রাহীম’ ও রাষ্ট্র ধর্ম ‘ইসলাম’ বহাল আছে। এমতাবস্থায় ধর্মীয় দল হিসেবে জামায়াতের রাজনৈতিক নিবন্ধন বাতিল করার প্রশ্নই উঠে না।

জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল বলেন, কোনো দলের নিবন্ধন সম্পর্কে পদক্ষেপ গ্রহণ করার দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের। আর নির্বাচন কমিশন একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান। নির্বাচন কমিশন জামায়াতের নিবন্ধন সংক্রান্ত কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করার পূর্বেই আদালত নিবন্ধন বাতিল করায় আমরা বিস্মিত। আমরা মনে করি এটা আইনের শাসন, গণতন্ত্র, মৌলিক অধিকার ও সংবিধান পরিপন্থী।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার এক বিভক্ত রায়ে জামায়াতে ইসলামীর নিবন্ধনকে অবৈধ ঘোষণা করেন আদালত।

হাইকোর্টের কার্যতালিকায় বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নিবন্ধন নিয়ে করা রিট আবেদনের রায় যেকোনোদিন দেবেন বলে জানিয়েছিলেন হাইকোর্ট। আদালতের আদেশ অনুযায়ী বুধবার কার্যতালিকায় রয়েছে বৃহস্পতিবার রায় ঘোষণার জন্য।

জামায়াতের নিবন্ধনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দাখিল করা রিট আবেদনের ওপর গত ১২ জুন বুধবার শুনানি শেষ হওয়ার পর আদালত রায়ের জন্য অপেক্ষমান রেখেছেন। হাইকোর্টের বিচারপতি এম মোয়াজ্জেম হোসেন, বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি কাজী রেজাউল হকের সমন্বয়ে গঠিত বৃহত্তর বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply