ব্রাহ্মণপাড়ায় অপহ্নত স্কুল ছাত্রী উদ্ধার, অপহরনকারী যুবক গ্রেপ্তার

সৈয়দ আহাম্মদ লাভলুঃ–

কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া থানা পুলিশ উপজেলার দুলালপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে সোমবার সকালে সাহেবাবাদ এলাকা থেকে উদ্ধার করে কুমিল্লা কোর্টে প্রেরন করেছে। এসময় পুলিশ অপহরনকারী যুবককে একই এলাকা থেকে আটক করে কোর্টের মাধ্যমে কুমিল্লা জেল হাজতে পাঠিয়েছে। মামলার এজাহার ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, উপজেলার বালিনা গ্রামের শিল্পী আক্তারের মেয়ে দুলালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছাত্রী শারমিন আক্তার(১৪) গত ৭ জুলাই প্রতিদিনের মত স্কুলে যাচ্ছিল। ঐ দিন সকাল ১০ টায় আগে থেকে উৎ পেতে থাকা পূর্ব পরিচিত আরমান হোসেন বাবু ও তার বন্ধুরা মিলে একটি সিএনজি আটোরিক্সায় করে জোরপূর্বক উঠিয়ে তাকে নিয়ে পালিয়ে যায়। অনেক খোজাখুজি করে না পেয়ে শারমীন আক্তারের মা শিল্পী আক্তার গত ১১ জুলাই কুমিল্লা কোর্টে এবং ১৪ জুলাই ব্রাহ্মণপাড়া থানায় শিশু ও নারী নির্যাতন আইনে ৭ জনকে আসামী করে একটি অপহরন মামলা দায়ের করেন । মামলার আসামীরা হল- খাগড়াছড়ি উপজেলার মুসলিমপাড়া গ্রামের মৃত হানিফ মিয়ার ছেলে আরমান হোসেন বাবু, সাহেবাবাদ গ্রামের মৃত মালেক মাষ্টারের ছেলে কামাল হোসেন, একই গ্রামের ধনু মিয়ার ছেলে আমান উল্লাহ, দেবিদ্ধার উপজেলার মাধাইয়া গ্রামের মৃত আবদুল মান্নানের ছেলে হাসান ড্রাইভার, খাসড়াছরি গ্রামের আরমানের ভাই মামুন মিয়া এবং পিতা অজ্ঞাত জুয়েল ও মুসা। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার এসআই সেলিম আল দ্বীন কুমিল্লা, চট্রগ্রাম, খাগড়াছড়িসহ বিভিন্ন এলাকায় খোজাখুজি করে অবশেষে গতকাল সোমবার ২২ জুলাই ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার সাহেবাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন নান্নুর সহযোগীতায় সাহেবাবাদ এলাকা থেকে শারমীন আক্তারকে উদ্ধার করে। তারা কৌশলে অপহরনকারী মামলার প্রধান আসামী আরমান হোসেন বাবুকে ঐ এলাকায় এনে তাকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। থানার ওসি(তদন্ত) মফজল আহমেদ এ প্রতিনিধিকে জানান, ভিকটিমকে উদ্ধার করে কুমিল্লা কোর্টে ও আপহরনকারীকে কোর্টের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply