সরকার যুদ্ধাপরাধের বিচারের নামে অবিচার করছে—-লেবার পার্টি চেয়ারম্যান ডা: মোস্তাফিজুর রহমান ইরান

ঢাকা প্রতিনিধি :–
লেবার পার্টি চেয়াম্যান ডা: মোস্তাফিজুর রহমান ইরান বলেছেন-সরকার শেখ মুজিব কর্তৃক চিহ্নিত ১৯৫ জন যুদ্ধাপরাধীকে ছেড়ে দিয়ে যুদ্ধাপরাধের বিচারের নামে অবিচারের আয়োজন করেছে। শেখ হাসিনা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবীতে ১৯৯৬ সালে মাওলানা নিজামী, মুজাহিদ, গোলাম আজমদের নিয়ে বৈঠক ও আন্দোলন সংগ্রাম দেশবাসী প্রত্যক্ষ করেছে। তখন জামায়াত ছিল আওয়ামী লীগের অন্যতম মিত্র-সঙ্গী। আর বর্তমানে বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে ১৮ দলভূক্ত হয়ে বিলুপ্ত তত্ত্বাবধায়ক পুনর্বহালের আন্দোলন করায় জামায়াত হয়েছে যুদ্ধাপরাধী, জঙ্গী। জামায়াত ১৮ দলে না থাকলে আজকের বিচারের মুখোমুখি হতো না। আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের চরম ভরাডুবি আতঙ্কেই জামায়াত নির্মূল অভিযান চলছে। এতে প্রমাণিত যে, সরকার যুদ্ধাপরাধীর বিচার নয় জামায়াত ইসলামীর বিচার করছে।
তিনি বলেন-সরকার দলীয় লোকদের দিয়ে ট্রাইব্যুনাল, প্রসিকিউশন ও তদন্ত টিম গঠন করে রায় দিচ্ছে অন্যদিকে দলীয় নেতা কর্মীদের লেলিয়ে দিয়ে রায়ের বিরুদ্ধে শাহবাগে অরাজকতা সৃষ্টি করছে। কাদের সিদ্দিকীর ভাষায়, ড. মহিউদ্দিন খান আলমগীর, ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন, আশিকুর রহমান, মাওলানা নুরুল ইসলামসহ আওয়ামী লীগের ৩৭ জন চিহ্নিত পাকিস্তান সরকারের দালাল রয়েছেন। তাদের গ্রেফতার ও বিচারের মুখোমুখি না করে রাজনৈতিকভাবে ঘায়েল করতেই জামায়াতি নেতাদের বিরুদ্ধে রায় প্রদান করছে। তাই সরকারের উচিৎ প্রতিহিংসার রাজনীতি ছেড়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুনর্বহাল করে নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি করা।
তিনি (আজ) বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় মেজর জলিল মিলনায়তনে লেবার পার্টি ছাত্র ফোরামের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন।
সভায় লেবার পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান এমদাদুল হক চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক রহমান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদ খান ও ছাত্র ফোরামের আহ্বায়ক কামরুল ইসলাম সুরুজ, যুগ্ম-আহ্বায়ক আলী হোসেন রাসেলের নেতৃত্বে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, তিতুমীর কলেজ ও বাঙলা কলেজের ছাত্ররা উপস্থিত ছিলেন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply