কুমিল্লার বুড়িচংয়ে টাক্ট্রর উল্টে ৩০ জন স্কুল ছাত্র আহত

জেহাদ হোসেন খোকন :–
সোমবার দুপুরে কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার খাড়াতাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা ফুটবল টুনামেন্টে অংশ নিতে যাওয়ার পথে কুমিল্লা- বুড়িচং-মিরপুর সড়কের স্থানীয় খাড়াতাইয়া এলাকায় টাক্ট্রর উল্টে কমপক্ষে ৩০ জন স্কুল ছাত্র মারাত্মক ভাবে আহত হয়। স্থানীয় এলাকাবাসী আহত স্কুল ছাত্রদেরকে উদ্ধার করে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং কুমিল্লা শহরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করে।

পুলিশ ও আহত ছাত্ররা জানায়, কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ষোলনল ইউনিয়নের খাড়াতাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাথে একই ইউনিয়নের পয়াত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা ফুটবল টুনামেন্টের খেলা গতকাল সোমবার দুপুরে স্থানীয় ভরসার সরকারি প্রাথমিক মাঠে খেলা অনুষ্ঠিত হওয়ার নির্ধারিত তারিখ ছিল।

এর প্রেক্ষিতে সোমবার দুপুর ২ টায় খাড়াতাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রদের নিয়ে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ কামরুল হাসান ভরাসারের উদ্দেশ্য ফুটবল খেলায় অংশ গ্রহনের জন্য খাড়াতাইয়া বাজারে গিয়ে একটি মাটিবাহী টাক্ট্ররে উঠিয়ে দেয় প্রায় ৪০-৫০ জন স্কুল ছাত্রকে।

কিছুদূর যাওয়ার পর কুমিল্লা- বুড়িচং – মিরপুর সড়কের খাড়াতাইয়া বাতানবাড়ী এলাকায় মাটিবাহী টাক্ট্ররটি বেপোয়ারা গতিতে চালাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে সড়কে উল্টে পড়ে কমপক্ষে ৩০ জন স্কুল ছাত্র মারত্মক ভাবে আহত হয়। এসময় এলাকাবাসী আহত স্কুল ছাত্রদেরকে উদ্ধার করে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে এবং কুমিল্লা শহরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করে। দূর্ঘটনার সাথে সাথে টাক্ট্রর চালক খাড়াতাইয়া গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেন পালিয়ে যায়।

বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আহত ছাত্ররা হলো, ইউসুফ রানা (১৩), পিতাঃ কামাল হোসেন, শাকিল(১৩), পিতাঃ স্বপন, মেহেদী (১২), পিতাঃ জাহাঙ্গীর আলম, জুয়েল(১২), পিতাঃ বজলু মিয়া, হানিফ (১৩), পিতাঃ আব্দুল লতিফ, মোয়ালেম (১২), পিতাঃ মালী মিয়া, রামিন(১১), পিতাঃ আবুল হোসেন, সালাহউদ্দিন(১৩), পিতাঃ মোহাম্মদ আলী, সুমন (১২), পিতাঃ জুয়েল, সোহেল রানা(১৩), পিতাঃ দুলাল মিয়া, শাখাওয়াত(১২), পিতাঃ শাহআলম, মোশারফ হোসেন(১৩), পিতাঃ কালা মিয়া, তোফায়েল (১২), পিতাঃ সফিকুল ইসলাম, বাছির(১৩), পিতাঃ জাহাঙ্গীর আলম ধনু প্রমূখ।

এদিকে আহত রামিন, বাছির অভিযোগ করে যে খাড়াতাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ কামরুল হাসান ছাত্রদেরকে নিয়ে বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা ফুটবল টুনামেন্টে পয়াত প্রাথমিক সরকারি সাথে খেলায় অংশ গ্রহন করার জন্য স্থানীয় স্থানীয় ভরাসার প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে অংশগ্রহন নিতে খাড়াতাইয়া বাজার থেকে তিনি একটি মাটিবাহী টাক্ট্ররে ৪০-৫০ জন ছাত্রকে উঠিয়ে দেন। এদিকে বুড়িচং উপজেলা কৃষকলীগের সেক্রেটারি এবং খাড়াতাইয়া গাজীপুর গ্রামের মিজানুর রহমান জানান, এ দূর্ঘটনাটি প্রধান শিক্ষক কামরুল হাসানের অবহেলার কারনে ঘটেছে। তিনি অর্থনৈতিক ভাবে ফায়দা লুটার জন্য মাটিবাহী টাক্ট্ররে ছাত্রদেরকে উঠিয়েছে। এছাড়া এলাকাবাসী আরো অভিযোগ করে যে, প্রধান শিক্ষক কামরুল হাসান নিয়মিত স্কুলে না এসে কুমিল্লা শহর এবং উপজেলা সদরে বেশি ভাগ সময় রাজনীতিতে ব্যয় করেন। এব্যাপারে প্রধান শিক্ষক কামরুল হাসানের মোবাইল ফোনে বার বার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এদিকে উপজেলা নির্বাহী মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান বলেন এবিষয়ে ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত রির্পোট পাওয়া সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এব্যপারে বুড়িচং থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মনিরুল ইসলাম বলেন দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে । ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌছার আগে টাক্ট্রর চালক ওই গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে জাহাঙ্গীর টাক্ট্রর নিয়ে পালিয়ে যায়। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply