কুমিল্লার মেঘনা উপজেলা বিএনপি সভাপতি রমিজউদ্দিনকে হত্যার চেষ্টা, ১ জন গ্রেফতার

মোঃ ইসমাইল হোসেন, মেঘনা প্রতিনিধি :–

কুমিল্লার মেঘনা উপজেলার বিএনপি সভাপতি মোঃ রমিজউদ্দিন লন্ডনীকে সন্ত্রাসীরা এসিড দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা চেষ্টা চালায়। আনোয়ার নামে এক ব্যক্তি গ্রেফতার শেষে পুলিশ রিমান্ডে এলে হত্যার রহস্য উদঘাটনের চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস হয়ে যায়। রবিবার আনোয়ার হোসেন হাজারীবাগ পুলিশের কাছে রমিজউদ্দিনকে হত্যা ও তার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করার চক্রান্তের গডফাদারদের নাম প্রকাশ করে। সিএনজি চালকের দক্ষতায় প্রানে রক্ষা পায় মেঘনা উপজেলা বিএনপি সভাপতি মোঃ রমিজউদ্দিন লন্ডনী। এসিড নিক্ষেপে শরীরের বেশীভাগ অংশ ঝলসে পুড়ে যায়। মুখমন্ডল ও দুই হাতে ক্ষত এখনও শুকায় নাই‎। গত ৫ জুলাই শুক্রবার রমিজউদ্দিন লন্ডনীর ঢাকার ১১৪/সি, ঝিকাতলা, মনেশ্বর রোড বাসাতে মোঃ আনোয়ার হোসেন (২৩) নামে এক ব্যক্তি নিজেকে ডিবি পুলিশের অফিসার পরিচয়ে মোঃ রমিজউদ্দিন লন্ডনীকে খোজ করতে থাকে। বাসার দারোয়ান রমিজউদ্দিনকে ঘটনাটি জানিয়ে ডিবি পুলিশ পরিচয়দানকারী ব্যক্তিকে ৫ তলা নিয়ে পরিচয়পত্র চাইলে দেখাতে ব্যর্থ হয়। তাৎক্ষনিকভাবে হাজারীবাগ থানা পুলিশকে জানাইলে ঘটনাস্থলে আসিয়া জানিতে পারে পরিচয়দানকারী পুলিশের লোক নয়। পুলিশ অফিসার পরিচয়দানকারী ব্যক্তিটি ঢাকার কোন এক এডভোকেটের পিয়ন। আনোয়ার হোসেনের পিতার নাম শফিউল্লাহ,নোয়াখালী জেলার সোনাইমুরী উপজেলার বাজিতপুর গ্রামের বাসিন্দা। ভূয়া পুলিশ পরিচয়দানকারী আনোয়ার হোসেন মেঘনা উপজেলার মোঃ দানিছুর রহমান দিপু ও এডভোকেট মোঃ হাতেম আলীর এবং রাধানগর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মোঃ সাহাবুদ্দিনের শলাপরামর্শে ভূয়া পুলিশ সেজে মোঃ রমিজউদ্দিনের ঢাকার বাসায় প্রবেশ করে গত ৫ জুলাই শুক্রবার রাত ৮টার দিকে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে আনোয়ার হোসেন (ভূয়া পুলিশ) রমিজউদ্দিন লন্ডনীর বিরুদ্ধে যারা ষড়যন্ত্র করছে তাদের নাম ঠিকানা হাজারীবাগ থানা পুলিশের নিকট ফাঁস করে দেয়। আনোয়ার হোসেন পুলিশকে জানায়, ষড়যন্ত্রকারীরা রমিজউদ্দিন লন্ডনীর বিরুদ্ধে কামারাঙ্গীরচর থানাতে লিপি আক্তার নামে একজন পতিতাকে দিয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ৪ জুন একটি মামলা রুজু করেছে। ভূয়া ডিবি পুলিশ পরিচয়দানকারী আনোয়ারের বিরুদ্ধে হাজারী থানাতে মোঃ নওশাদ বাদী হয়ে একটি মামলা রুজু করে। মামলা নং- ৬, তারিখ ৫ জুলাই। বাদী মোঃ নওশাদ মেঘনা উপজেলা রাধানগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল বাতেনের পুত্র বলে মামলা সূত্রে জানা যায়। মামলার বাদী মোঃ রমিজউদ্দিন, হাজারীবাগ মামলা নং-২৩,তারিখ ২৫/৬/১৩ইং। মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ১৪ জুন শুক্রবার মোঃ রমিজউদ্দিন লন্ডনী মেঘনা উপজেলার মুগারচর গ্রাম হইতে লঞ্চ পাড় হয়ে মেঘনা ঘাট হইতে ঢাকার বাসা ১১৪/সি ঝিকাতলা উদ্দ্যেশে রওনা দেয় সিএনজি যোগে। সিএনজিটি ঝিকাতলার মনেশ্বর রোড বাসার কাছাকাছি রাত আনুমানিক ১১.৩০ মিনিটের সময় পৌছলে তাহার পূর্ব পরিচিত বিএনপির মেঘনা উপজেলার নেতারা মোঃ রমিজউদ্দিন লন্ডনীকে কথা শোনার জন্য ডাক দেয়। রমিজউদ্দিন লন্ডনী তাহার গ্রামের বাড়ীর মেঘনা উপজেলার একই গ্রামের মুগারচর গ্রামের রাধানগর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মোঃ সাহাবুদ্দিন, সাবেক রাধানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাধানগর গ্রামের মোঃ কামরুল ইসলাম, রাধানগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মুগারচর গ্রামের মোঃ মোশারফ হোসেন ইমান আলী, নক্ষনখোলা গ্রামের মেঘনা উপজেলার ছাত্রদলের সভাপতি মোঃ মনিরুল হোসেন তুষার,মেঘনা উপজেলার বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ জহিরুল ইসলাম, মুগারচর গ্রামের আতাউর রহমান, মুগারচর গ্রামের জাহাঙ্গীর, মুগারচর গ্রামের কালাম আরো অজ্ঞাতনামা কয়েকজন রমিজউদ্দিনের সাথে সাংগঠনিক আলাপ আলোচনা আছে বলে সিএনজি থামাতে বলে। তিনি সরল বিশ্বাসে সিএনজিটি থামালে কিছু বুঝে উঠার আগেই দ্রুত মোঃ রমিজউদ্দিন লন্ডনীর মুখে এসিড নিক্ষেপ করে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। সিএনজি ড্রাইভার দ্রুত মোঃ রমিজউদ্দিন লন্ডনীকে নিকটতম মোট্রো হাসপাতাল চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। এসিড নিক্ষেপের কারনে রমিজউদ্দিন লন্ডনীর হাত ও মুখমন্ডল ঝলসে যায়। নিকটতম মেট্রো হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে হাজারীবাগ থানাতে মামলা রুজু করিলে মামলাটি হাজারীবাগ থানার ওসি তদন্ত শেখ মোঃ নাসীর উদ্দিন মামলাটির তদন্তকারী অফিসার। আলাপকালে তদন্তকারী অফিসার বলেন, মামলাটি তদন্ত চলছে। আসামী গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এই মামলার আসামীদের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হয়, তাহাদের বক্তব্য নেয়ার জন্য। কেউ মোবাইল ফোন রিসিভ করছে না। স্থানীয়ভাবে খোজখবর নিয়ে জানা যায়, রমিজউদ্দিন লন্ডনী স্বপরিবারে লন্ডন বসবাস করেন। তিনি বৃটিশের নাগরিক। মেঘনা উপজেলার সাধারন মানুষের বিপদে আপদে টাকা-পয়সা দিয়ে এবং নানাভাবে সাহায্য সহযোগিতার করার সুনাম আছে। রমিজউদ্দিন লন্ডনী আলাপকালে বলেন, তিনি গ্রামের মানুষের কল্যানের ও এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে রাজনীতির সাথে জড়িত। তাহার পিতা মরহুম মোঃ সিরাজুল ইসলাম বৃটেনের নাগরিকত্ব পেয়েও দেশের কল্যানে জীবনের বেশীভাগ সময় ব্যয় করেছেন। তাহার পিতা দীর্ঘদিন রাধানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন। পিতার কাজের প্রতি উৎসাহিত হয়ে তিনি দেশের কল্যানে নিজেকে জড়িত রাখতে চান।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply