নাসিরনগরে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে অর্ধ শতাধিক আহত॥ ২০ রাউন্ড টিয়ার সেল নিক্ষেপ

আকতার হোসেন ভুইয়া,নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া):–

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে মোবাইলে ফেক্সিলোডকে কেন্দ্র করে দু’পরে সংঘর্ষে মহিলাসহ কমপে অর্ধশতাধিক আহত হয়েছে। ২২ রাউন্ড শর্টগানের গুলি ও ১৪ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পুলিশ সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রনে আনে। বর্তমানে এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সংঘর্ষে আহত ৭৪ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, গতকাল সোমবার সকালে উপজেলার ফান্দাউক পশ্চিমপাড়ার শাহআলম শাহের ছেলে মোঃ রুবেল শাহ ও পূর্ব পাড়ার মোঃ হারু মিয়ার ছেলে মোঃ ফারুক মিয়ার মধ্যে মোবাইলে ফেক্সিলোড করা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে উভয় পরে কয়েক শতাধিক লোক দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে সশস্ত্র সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। দুপুর পর্যন্ত ৪ ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে উভয় পরে মহিলাসহ কমপে অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছে। আহতদের নাসিরনগর, মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্স ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি ও চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। সংঘর্ষে আহত ৭৪ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। খবর পেয়ে নাসিরনগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে ব্যাপক লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে ব্যর্থ হয়। পরে জেলা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) মোঃ শাহ আলম বকাউল এর নেতৃত্বে দাঙ্গা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ২০ রাউন্ড টিয়ার সেল নিপে করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সামিহা ফেরদৌসী ও উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আহসানুল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। নাসিরনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল কাদের জানান, ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তবে বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply