কুমিল্লায় বিচারকের সামনে যুবতীর আত্মহত্যার চেষ্টা

কুমিল্লা প্রতিনিধি:–
বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় লাকী আক্তার (২০) নামের হতাশাগ্রস্ত এক যুবতী কুমিল্লা নারী ও শিশু আদালত এজলাসে বিচারকের সামনে বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। এ নিয়ে আদালতপাড়ায় ব্যাপক তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়েছে।
লাকী আক্তার (২০) জেলার দেবিদ্ধার উপজেলার চরবাকর গ্রামের বাদশাহ মিয়ার মেয়ে। সে কুমিল্লা ইপিজেডের একজন শ্রমিক বলে জানা গেছে। বিষপান করার পর দ্রুত তাকে কুমিল্লা সদর হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা প্রদান করা হয়।
হাসপাতালে চিকিৎসারত লাকী আক্তার বৃহস্পতিবার বিকেলে জানান, ২০১০ সালে ইপিজেডের সহকর্মী চান্দিনা উপজেলার আব্দুল বারেকের ছেলে কুটুম্বপুর এলাকার নাসির উল্লাহ(২৫) এর সাথে আমার সর্ম্পক হয়। ওই বছরের নভেম্বর মাসে সে আমাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে আমি গর্ভবতী হলে সে আমাকে বিয়ে করার আশ্বাস দিয়ে গর্ভপাত করার জন্য বলে।
আমি ২০১১ সালের ৪ ফেব্রুয়ারী দেবিদ্ধার উপজেলার ডাঃ জাকির হোসেনের কাছে গর্ভপাত করে বাচ্চাটি ফেলে দেই। গর্ভপাত করানোর পরে নাসির উল্লাহ আমার সাথে বেঈমানি করে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়। পরে আমি উপায়ন্তর না দেখে গত বছরের শেষের দিকে নারী ও শিশু আদালতে ধর্ষণ মামলা করি। প্রতারক নাসির উল্লাহ নিদির্ষ্ট সময়ে আদালতে হাজির না হয়ে চলতি বছরের ২৩ এপ্রিল আদালত থেকে জামিন পায়।
আমি এত কষ্ট করে প্রায় আদালতে যাচ্ছি ন্যায় বিচার পাওয়ার জন্য, কিন্তু প্রতারক নাসির উল্লাহ আদালত থেকে জামিন নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। আমি সমাজে ঘৃণিত হয়েছি, সমাজ আমাকে ভালভাবে নিচ্ছে না। লজ্জায় এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় ভাড়া করে বসবাস করছি। কোথাও স্থায়ী হতে পারছিনা। আমি কি নিয়ে সমাজে বসবাস করব। তাই আজ(বৃহস্পতিবার) আদালতে আমার মামলার শুনানি চলাকালে আমি বিষপান করে আত্মহত্যা করতে চেয়েছি।
কুমিল্লা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিশেষ পিপি এড. ছিদ্দিকুর রহমান জানান, আমি যতটুকু জানি, বাদি পক্ষের মেডিকেল সার্টিফিকেটের কিছুটা গড়মিল থাকায় বিবাদি জামিন পেয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply