একজন ব্যতিক্রমী ইউএনও লাকসামের শাহগীর আলম

আজিম উল্যাহ হানিফঃ–

দেশে যখন যে সরকার ক্ষমতায় থাকে তখন প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ সেই সরকারের অনুগত থাকার বিধান রয়েছে। কিন্তু তারপরও অনেক কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ সরকারকে খুশী করার জন্য অতি উৎসাহি হয়ে নিরপেক্ষতার নীতি অবলম্বন না করে চলতে থাকে। যাহা দৃষ্টি কটু। এভাবে সরকার প্রধানের কার্যালয় থেকে শুরু করে উপজেলা প্রশাসন পর্যন্ত কর্মকর্তা কর্মচারীগণ চাকুরীর বিধি ও নিয়ম-নীতির তোয়াক্বা না করে যারাই অগ্রগামী হয় তারাই পড়ে বিপদে। বিশেষ করে সরকারের আপ্রাণ চেষ্টা থাকলেও উপজেলা পর্যায়ের কর্তা ব্যক্তিগণ আন্তরিক না হলে তৃনমূল পর্যায়ের অবকাঠামোগত উন্নয়ন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরিবেশ, ভেজালমুক্ত খাদ্যসহ মোদ্দাকথা সামাজিক অবক্ষয় কখনো পরিবর্তন হবেনা। যার জন্য বদনাম হতে হবে ক্ষমতাসীন সরকারের। কিন্তু লাকসাম তার ব্যতিক্রম। ২০১১ইং সালে জুলাই মাসে ৩১ তারিখে লাকসাম উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে যোগদান করেন মোঃ শাহগীর আলম। যোগদানের পর থেকে উপজেলা পর্যায়ের প্রতিটি ডিপার্টমেন্টে সু-কৌশলে স্বচ্চতা এবং জবাবদিহীতার আওতায় নিয়ে আসে। পর্যায়ক্রমে স্কুল কলেজ মাদরাসাসহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের রিপোর্ট সংগ্রহ করে আধুনিক ও মানসম্মত শিক্ষা ও শিক্ষা বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি করার জন্য প্রধানদের সাথে মতবিনিময় করে ধীরে ধীরে তা নিশ্চিত করেন। স্থানীয় জাতীয় সংসদ সদস্যের আন্তরিক সহযোগীতায় তিনি তৃণমূল পর্যায়ের অবকাঠামোগত উন্নয়ন যেমন: টিআর, কাবিখা, কাবিটা, এডিপি, এলজিএসপি, স্থানীয় সরকার বিভাগের ব্রীজ, কালভার্ট, সড়ক এবং শিক্ষা বিভাগে উন্নয়ন যেমন: স্কুল কলেজ ও মাদরাসার ভবণ নির্মানের (টেন্ডারের) কাজ ইত্যাদি যথাসময়ে শেষ করার এবং স্বচ্চতা নিশ্চিত করা সহ কাজের মান ধরে রাখার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন। বিশেষ করে লাকসামের ভেজাল বিরোধী মোবাইল কোর্ট অব্যাহত রেখে লাকসামকে ১০০% ভেজাল মুক্ত ঘোষনা না করা গেলেও ৭৫% বলা যেতে পারে। ০২ মেয়ে ০১ ছেলে সন্তানের জনক ইউএনও শাহগীর আলমকে অনেকেই অত্যন্ত রাগী বলে ধারণা করলেও তিনি নীতিগত ভাবে আপোষহীন। অফিস সময়ের পরও প্রায় তাকে গ্রাম পর্যায়ে অনেক উন্নয়ন কাজ দেখতে হঠাৎ করে স্পটে যেতে দেখা যায় বলে অনেকেই জানিয়েছেন। তিনি মাঝে মধ্যে নিজেই হাতে লাঠি নিয়ে লাকসাম বাইপাসের যানজট নিরসনের জন্য রাস্তায় দাড়িয়ে যাতায়াতরত গাড়িগুলো সিরিয়াল করতে দেখা গেছে। লাকসাম যোগদানের প্রায় ০২ বছর অতিবাহিত হওয়ার পথে। সরকারের সকল পদক্ষেপ ও নির্দেশনা গুলো পালনের ব্যাপারে এবং বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে তার অন্তরিকতা ছিল লক্ষণীয়। সম্প্রতি আলাপকালে তিনি জানান, আমি লাকসামের সকল মানুষের এবং স্থানীয় এমপি মহোদয়ের স্নেহে এবং সহযোগীতায় আপোষহীনভাবে কাজ করতে সর্বাত্তক চেষ্টা করেছি। এতে ভুল ভ্রান্তি কিছু হতেই পারে। ইউএনও শাহগীর আলম লাকসামের সাধারণ জনগণের কাছেন একজন আদর্শ অফিসার হিসেবে খ্যাতি লাভ করতে সক্ষম হয়েছেন। লোভ-লালসার উর্দ্ধে থেকে তিনি এবং তার অধিনস্থদেরকে কাজ করতে সব সময় বলতে শুনেছি।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply