ঘরোয়া ক্রিকেটের নিলামে বিদেশীরা নেই

ঢাকা:–

আসছে সপ্তাহের সোমবারের মধ্যেই গ্রেডিং অনুযায়ী ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক চূড়ান্ত করার কথা জানালেন সিসিডিএম চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। এরপর দল বদলের জন্য নিলাম অনুষ্ঠিত হবে। তবে সেই নিলামে থাকছে না কোনো বিদেশী ক্রিকেটার। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

গ্রেড অনুযায়ী ক্রিকেটারদের দাম নির্ধারণ করে চলতি সপ্তাহের শুরুতেই তা হস্তান্তরের নির্দেশ দিয়েছিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। সে অনুযায়ী কাজ করে চলছেন সিসিডিএম কর্মকর্তারাও। যদিও গ্রেডিং পদ্ধতিতে দেশী ক্রিকেটারদের মূল্য নির্ধারণ নিয়ে এখনও ঐক্যমতে পৌঁছাতে পারেননি বোর্ড ও ক্লাব সংশ্লিষ্টরা।

বুধবার এ নিয়ে বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস নতুন বার্তাকে বলেন, “প্রিমিয়ার লিগের পুরো বিষয়টিই সভাপতি দেখছেন। আমরা একটা খসড়া করে ফেলেছি। তিনি মঙ্গলবারই দেশের বাইরে থেকে ফিরেছেন। শীঘ্র্যই এটা তাকে দেয়া হবে। আশা করছি রবি-সোম বারের মধ্যে গ্রেডিং এর সবকিছু চূড়ান্ত করে ফেলতে পারব।”

নতুন কাঠামোতে এবারের লিগে দেশী ক্রিকেটারদের নিলাম অনুষ্ঠিত হলেও বিদেশী ক্রিকেটারদের এ প্রক্রিয়ার বাইরে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিসিডিএম। আর বিদেশী ক্রিকেটারদের পুরো বিষয়টিই ক্লাবগুলোর পছন্দের উপর ছেড়ে দিয়েছেন তারা। প্রতি ম্যাচে সর্বোচ্চ তিন বিদেশীকে খেলাতে পারবে ক্লাবগুলো। আর টুর্নামেন্টে প্রতিটি ক্লাব সর্বোচ্চ আট জন করে বিদেশী ক্রিকেটার রেজিস্ট্রেশন করাতে পারবে। বিপিএলে ম্যাচ ফিক্সিং ঘটনায় পর পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা জানানো হলেও সে সিদ্ধান্ত থেকেও সরে এসেছে বোর্ড বলে জানান সিসিডিএম’র সদস্য সচিব রাকিব হায়দার পাভেল।

তিনি বলেন, “আসন্ন প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে ক্লাবগুলো চাইলে ব্যক্তিগতভাবে যোগাযোগ করে পাকিস্তানের ক্রিকেটার দলে নিতে পারবে। কোনো দেশের ক্রিকেটারদের ওপরই আমাদের নিষেধাজ্ঞা নেই।”

রোটেশন পদ্ধতিতে ক্রিকেটার নিলামে অংশগ্রহণকারী ১২টি দলের শক্তিতে খুব একটা তারতম্য হবার কথা নয়। এক্ষেত্রে এবারের লিগে বিদেশি ক্রিকেটাররাই ম্যাচের ভাগ্য পরিবর্তনে বড় ভূমিকা রাখবে বলে জানান সিসিডিএম’য়ের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান হানিফ ভুঁইয়া।

এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘যে ক্লাবের আন্তর্জাতিক যোগাযোগ ভালো, একই সঙ্গে যাদের বাজেট যতো বড়, তারাই এক্ষেত্রে লাভবান হবেন। কারণ, তারা পছন্দের বিদেশী ক্রিকেটারকে চড়া মূল্যে আনতে পারবে।” স্থানীয় ক্রিকেটারদের নিলামে ক্রয় করলে তাদের প্রকৃত আয় জানানো হলেও বিদেশী ক্রিকেটারদের প্রকৃত মূল্য গোপনীয় থাকছে এবারও। সেক্ষেত্রে হুন্ডির মাধ্যমে তাদের সম্মানী পাচার হয়ে যাবার সম্ভাবনা সম্পর্কে জানতে চাইলে সিসিডিএম ভাইস প্রেসিডেন্ট মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকেন।

Check Also

কুমিল্লার বিপক্ষে ১৫৩ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে রাজশাহী

ক্রীড়া প্রতিবেদক :– বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটে রাজশাহী কিংসকে ১৫৩ রানের টার্গেট দিলো কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। ...

Leave a Reply