কসবায় ২৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন ঝুঁকিপূর্ণ

ব্রাক্ষণবাড়িয়া :–
জেলার কসবা উপজেলার ৭১টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ২৬টিরই ভবন ঝুকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে উপজেলা প্রশাসন। সংশ্লিষ্ট ওই বিদ্যালয়গুলোর প্রধান শিক্ষকদেরকে ঝুঁকিপূর্ণ এসব ভবনে ক্লাশ না নেওয়ার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। এরমধ্যে কয়েকটি বিদ্যালয় ভবন তালাবদ্ধও করে দেওয়া হয়েছে।

ঝুঁকিপূর্ণ এসব বিদ্যালয়ের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা কোথায় ক্লাশ করবে তা নিয়ে বিপাকে পড়েছেন অভিভাবকরা। ছাত্রছাত্রীরা জীবন রক্ষার্থে বিদ্যালয়ের মাঠে ক্লাশসহ পরীক্ষা দিতে বাধ্য হচ্ছেন।

কসবা উপজেলা শিক্ষা অফিস কর্তৃক চিহ্নিত ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যালয়গুলো হচ্ছে-পৌর এলাকার বগাবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তালতলা সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের ভাতশালা সরকারী প্রাথিমিক বিদ্যালয়, জগন্নাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, লতুয়ামোড়া রেজিস্ট্রার্ড বে-সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, বড়মোড়া রেজিস্ট্রার্ড বে-সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, বিনাউটি ইউনিয়নের চাপিয়া সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, ধামসার রেজিস্ট্রার্ড বে-সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, বাদৈর ইউনিয়নের বাদৈর সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, শেরপুর-জয়পুর সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, মূলকগ্রাম ইউনিয়নের মূলকগ্রাম সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, নেয়ামতপুর সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, মেহারী ইউনিয়নের শিমরাইল-সাতপাড়া সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, যমুনা সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, আমখার রেজিস্ট্রার্ড বে-সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, খাড়েরা ইউনিয়নের আদ্রা-অনন্তপুর সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, কুটি ইউনিয়নের কুণ্ডুটি সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, কসবা পশ্চিম ইউনিয়নের মীরতলা সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, বিলঘর সরকারি প্রাথমিক প্রাথিমিক বিদ্যালয়, কাইমপুর ইউনিয়নের কাইমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কামালপুর সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, উওর চকবস্তা রেজিস্ট্রার্ড বে-সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, এবং বায়েক ইউনিয়নের অস্টজঙ্গল সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, জয়দেবপুর সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়, খাদলা সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয় ও শ্যামনগর রেজিস্ট্রার্ড বে-সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা লায়লা নূর জানান, ঝুকিপূর্ণ ভবনগুলো জরুরি ভিত্তিতে মেরামত করার জন্য উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে যথাযথ কৃর্তপক্ষের কাছে জানানো হয়েছে।

তিনি জানান, বর্তমানে গ্রীষ্মকালীন ছুটির পর বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা সুবিধামত স্থানে পাঠদানের জন্য পরিকল্পনা নেওয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকাতা (ইউএনও) জালাল সাইফুর রহমান জানান, উপজেলা শিক্ষা অফিস কর্তৃক ২৬টি তালিকাভুক্ত ঝুকিপূর্ণ বিদ্যালয় জরুরিভাবে মেরামত করে ছাত্রছাত্রীদের পাঠ্যদানের দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply