দেবিদ্বারে প্রাইভেট হাসপাতালের পেছনে ডাস্টবিন থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার : হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

মোঃ জামাল উদ্দিন দুলালঃ–

বৃহস্পতিবার দুপুরে কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলা সদরের সামাদ ম্যানশনে অবস্থিত ‘দেবিদ্বার মেডিকেল সেন্টার’ (প্রাইভেট) এর পেছন থেকে এক নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ব্রাক্ষণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার সলিমগঞ্জ গ্রামের শ্যামল চক্রবর্ত্তী’র স্ত্রী মিতু চক্রবর্ত্তী’র নামে এক প্রসূতীকে বুধবার সন্ধ্যায় ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাত সাড়ে ৮টায় ডা. শাহিন সুলতানার তত্বাবধানে ওই প্রসূতীর দুটি (পুত্র/ কণ্যা) সন্তান জন্মগ্রহন করে। কর্তব্যরত নার্স আয়শা আক্তার প্রসূতীর স্বজনদের জানান, মেয়ে বাচ্চাটি জীবীত থাকলেও ছেলে বাচ্চাটি মারা গেছে। প্রসূতীর স্বজনেরা মূমূর্ষ প্রসূতীকে নিয়ে ব্যাস্ত থাকায় নবজাতকদের খোঁজ খবর নিতে পারেনি। সকালে প্রসূতীর স্বামী শ্যামল চক্রবর্ত্তী তার মেয়ে সন্তানকে দেখতে পেলেও তার মৃতঃ পুত্র সন্তানের খোঁজ নিতে গেলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তার সন্তান দেখাতে পারেননি। বিষয়টি নিয়ে উপজেলা সদরে তোলপাড় শুরু হলে সংবাদ পেয়ে পুলিশ হাসপাতালের পশ্চিম পার্শের জানালা বরাবর মাটিতে পড়ে থাকতে দেখে লাশ উদ্ধার পূর্বক ময়না তদন্তের জন্য থানায় নিয়ে আসে।
ওই ঘটনায় নবজাতকদের পিতা শ্যামল চক্রবর্ত্তী দেবিদ্বার থানায় একটি অভিযোগ পত্র দাখিল করেন। এব্যাপারে শ্যামল চক্রবর্ত্তী বলেন, শোনেছি আমার দু’সন্তান জন্ম গ্রহন করেছে, তবে ছেলে সন্তানটি মারা গেছে। কিন্তু আমার মৃতঃ সন্তানকে দেখাতে বললে তারা সন্তানটি না দেখিয়ে নানা তালবাহানা শুরু করে। দুপুরে পুলিশের সহযোগীতায় হাসপাতালের পেছন থেকে মৃতঃ সন্তানকে উদ্ধার করি।
দেবিদ্বার মেডিকেল সেন্টার’র মালিক মেসবাহ্ উদ্দিন খোকন’র সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, প্রসূতী দু’টি বাচ্চা প্রসব করলেও একটি বাচ্চা মারা যায়, ওই বাচ্চাটি প্রসূতীর অভিবাভক না নেওয়ায় অপারেশন কক্ষে রয়ে যায়।পরে রাতে কর্তব্যরত আয়া আমাদেরকে না জানিয়ে পেছনের জানালা দিয়ে বাহিরে ফেলে দেয় ।
এব্যাপারে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সাহিন সুলতানা’র ০১৭১১১৪৪৯২৫ নম্বরের সেল ফোন যোগাযোগ করা হলে বন্ধ পাওয়া যায়।
দেবিদ্বার থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) আব্দুর রহীম বলেন, মৃত নবজাতকের পিতা থানায় অভিযোগ পত্র দিয়েছেন, নবজাতক জীবিত অথবা মৃত হোক, তাকে তার অভিভাবকের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। কিন্ত টিসু পেপারের মতো জানালা দিয়ে একটি শিশু ফেলে দেয়া অমানবিক কাজ।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply