বরের বয়স ১৪ কনের ১৫

স্টাপ রিপোর্টার :–

কচুয়ায় অপ্রাপ্ত বয়সী কিশোর জহির (১৪) ও কিশোরী সুমি আক্তার (১৫)’র বিয়ে দিয়েছে স্থানীয় লোকজন। গত সোমবার মধ্যরাতে উপজেলার ডুমুরিয়া গ্রামে বাল্য বিয়ের এঘটনা ঘটে। মেয়ের পরিবার দাবি করছে অসামাজিক কর্মকা্ন্ডে লিপ্ত থাকার অভিযোগে এ বিয়ে দেয়া হয়। এঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

সরে জমিনে জানা গেছে- উপজেলার কড়ইয়া ইউনিয়নের ডুমুরিয়া গ্রামের অধিবাসী নুরুল আমিনের পুত্র কিশোর জহির হোসেন (১৪) সোমবার রাতে একই গ্রামের খামার বাড়িতে স্থানীয় যুবকদের উদ্যোগে পিকনিক অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে বাড়ি ফেরার পথে ওই গ্রামের আলী হোসেনের মেয়ে সুমি আক্তার (১৫) তাকে ফোন করে তাদের ঘরে নিয়ে যায়। এসময় সুমির সাথে কথা বলার একপর্যায়ে সুমির চাচা আলী আক্কাস ও নবীর হোসেন তাকে (জহির কে) আটক করে মারধর করে ছেলের বাবাকে খবর দিয়ে জোরপূর্বক বিয়ের আয়োজন করে।

জহিরের পিতা নুরুল আমিন ও মাতা জাহানারা বেগম জানান, আমাদের ছেলে ওই দিন রাতে পিকনিক অনুষ্ঠানে গেলে পরিকল্পিতভাবে তাকে আটক করে মারধর করে বিয়ে পড়ানো হয়। কনে সুমি আক্তার জানায়- আমার পিতা ও মাতা ঘটনার দিন বাড়িতে ছিল না। জহিরের সাথে আমার গত ২মাস ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। ঘটনার দিন রাতে জহির আমার কথায় আমার সাথে দেখা করতে গেলে, আমার চাচা আলী আক্কাস বিয়ের আয়োজন করে।

এদিকে মেয়ের চাচা আলী আক্কাস জানান- সুমির চলা ফেরা একটু উশৃংখল বিধায় ওই দিন রাতে সুমিদের ঘরে আটকের পর উভয়ের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী স্থানীয় মেম্বার হারুন অর রশিদসহ অন্যান্যদের সহায়তায় বিয়ের আয়োজন করা হয়। এলাকাবাসী জানিয়েছে- স্থানীয় কাজী মনির বকাউলের নেতৃত্বে ডুমুরিয়া বেপারী মসজিদের ইমাম হোসাইন ৩ লক্ষ টাকার কাবিন করে এ বিয়ে সম্পন্ন করে।

এব্যপারে কচুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জিয়া আহমেদ সুমন জানান- অপ্রাপ্ত বয়সী কিশোর-কিশোরীর বিয়ে একটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এ ক্ষেত্রে অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Check Also

যে কোনো আন্দোলন-সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে : বিএনপি

চাঁদপুর প্রতিনিধি :– চাঁদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সাধারণ সভায় বক্তারা বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম ...

Leave a Reply