বুড়িচংয়ে বোরো ধানের বাম্পার ফলন সত্বেও ন্যায্য মূল্য নিয়ে দুশ্চিন্তা কৃষকের

জেহাদ হোসেন খোকন :–

বোরো ধান কাটা -মাড়্ইায়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার কৃষকেরা। ধান কাটার উৎসব চললেইও হাসি নেই কৃষকের মুখে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। কিন্তু ধান উৎপাদনে ব্যয় বেশি ও বাজারে ধানের সঠিক মূল্য না পাওয়ায় চিন্তিত হয়ে পড়েছেন এ উপজেলার কৃষকেরা। প্রতিমন ধান উৎপাদন করতে ৬০০/৭০০ টাকা হলেও কৃষকদের প্রতিমন ধান বিক্রয় করতে হয় ৫ শ টাকা। এতে করে প্রতিমন ধান উৎপাদনে তাদের ক্ষতি গুনতে হচ্ছে ১০০/২০০ টাকা। বিগত কয়েক বছর কৃষকেরা ধানের প্রত্যাশিত মূল্য না পাওয়ায় প্রতি বছরেই আগ্রহ হারাচ্ছে কৃষকেরা। চলতি মৌসুমে এই উপজেলায় এ পর্যন্ত ৫০ শতাংশ বোরো ধান কাটা মাড়াই সম্পন্ন হয়েছে। বুড়িচং উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় লক্ষ্য মাত্রার চেয়ে অর্জিত হয়েছে বেশি। ৮ হাজার ৮শ ৩০ হেক্টর জমিতে বোরো চাষের লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারণ করা হলেও অর্জন হয়েছে ৯ হাজার ৩শ ২০ হেক্টও, যা লক্ষ্য মাত্রার চেয়ে অর্জন বেশি। সরকার ধানের সঠিক মূল্য নির্ধারন এবং সার, তেল, কীটনাশক ও বিদ্যুতে ভর্তুকি না বাড়ালে ধান চাষে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবেন কৃষকেরা। এমনটাই আশস্কা কৃষি সংশ্লিষ্টরা। বুড়িচং উপজেলার কৃষক আলীনুর জানান, প্রতি বছর ধানের ভাল দাম পাওয়ার আশায় ধান চাষ করলেও সঠিক মূল্য পাওয়া থেকে বঞ্চিত হচ্ছে কৃষকেরা। তবু বেঁেচ থাকার অবলম্বন এবং নেশা ও পেশায় ধান চাষ করেই বেচেঁ থাকতে হচ্ছে কৃষকেরা। কৃষক ওয়াজকুরুন ও ফয়েজ জানান, পানির দামে ধান বিক্রি করে শ্রমিকদের মজুরি মেটাতে হচ্ছে তাদের। উৎপাদিত ধানের বেশির ভাগ চলে যায় ধান কাটা মাড়াই এর মজুরি মেটাতে। তাছাড়া হাল চাষ, চারা ক্রয় ও রোপন, নিড়ানি, কীটনাশক, সার সহ আরো অনেক খরচ গুনতে হয়েছে সারা মৌসুম জুড়ে। বুড়িচং উপজেলার মাটি এবং আবহাওয়া ধান চাষের উপযোগী হওয়ায় শস্য হিসেবে ধান চাষই বুড়িচং এর মানুষের এক মাত্র ভরসা। তাই ধানের ন্যায্য মূল্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করে কৃষক পরিবার গুলোকে বাঁচাতে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহন করার জন্য সরকারের দৃষ্টি আকর্ষন করেছে কৃষকেরা।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply