নওয়াজের নেতৃত্বে জোট সরকারের পথে পাকিস্তান

ঢাকা :–
পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচন শেষ হওয়ার পর এখন পর্যন্ত ২৩৫টি আসনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। এতে দেখা যাচ্ছে- নিরঙ্কুশ জনসমর্থন পাচ্ছেন না কেউ। যদিও একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার কারণে অনেকটা এগিয়ে আছেন দুইবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ।

ফলে তার নেতৃত্বে জোট সরকার গঠনের বিষয়টি এখন অনেকটাই নিশ্চিত। পাকিস্তানের পার্লামেন্টে মোট ৩৪২টি আসন। তবে দেশটিতে সরাসরি নির্বাচন হয় ২৭২টি আসনে। এর মধ্যে এককভাবে সরকার গঠন করতে হলে কোনো দলকে ১৭২টি আসন পেতে হবে।

তবে সেটি যে আর কেউ পাচ্ছে না তা এখন নিশ্চিত। দেশটির দৈনিক জং পত্রিকার সর্বশেষ খবরে বলা হয়, ২৩৫টি ফলাফল ঘোষিত আসনের মধ্যে ১০৭টি পেয়ে শীর্ষে রয়েছে নওয়াজ শরীফের দল পাকিস্তান মুসলিম লীগ নওয়াজ (পিএমএল-এন)।

৩২টি আসন পেয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিকে ইনসাফ (পিটিআই)। ২৮টি আসন পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে শাসকদল পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি)। চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে মুত্তাহেদা কওমি মুভমেন্ট (এমকিউএম)। দলটি পেয়েছে মোট ১৩টি আসন।

স্বতন্ত্র প্রার্থীরা পেয়েছেন মোট ২৫টি আসন। এছাড়া ছোট ছোট দলগুলো পেয়েছে বাকি কয়টি আসন। পাকিস্তানে পার্লামেন্টের মোট ৩৪২ আসনের মধ্যে ৬০টি আসন নারীদের জন্য সংরক্ষিত। আর ১০ সংরক্ষিত সংখ্যালঘু অমুসলিমদের জন্য।

যে ৩৭টি আসনের ফল এখনো ঘোষণা করা বাকি রয়েছে তার মধ্যে সবগুলো কোনো দল পাবে না এটা নিশ্চিত। যদি কোনো দল সবগুলো বা বেশিরভাগ আসন পায়ও তবুও একক সরকারের গঠন আর হচ্ছে না। জোট সরকার ও ঝুলন্ত পার্লামেন্টেই আটকে থাকতে হচ্ছে ঐতিহাসিক নির্বাচনে আসন পাওয়া দলগুলোকে।

তবে এখন দেখার বিষয় হচ্ছে কে কত বেশি আসন নিয়ে নওয়াজ শরীফের কাছ থেকে কেমন সুবিধা আদায় করে নিতে পারে।

Check Also

রিয়াদে জ্যাবের ‘অমর একুশে’ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ষ্টাফ রির্পোটার :– “অমর একুশের চেতনায় গন মানুষের মনে জেগে উঠুক উজ্জলতা উৎকৃষ্টতা” শীর্ষক আলোচনা ...

Leave a Reply