কুবি শিক্ষকদের ভুলে ভরা পরিচয়পত্র প্রদান

রাসেল মাহমুদ, কুবি প্রতিনিধি:–
গত ৮ মে রোজ বুধবার প্রথমবারের মত কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) শিক্ষকদের পরিচয় পত্র সরবরাহ করা হয়। সরবরাহকৃত এ পরিচয় পত্রে অন্তত ২ টি জায়গায় ভুল তথ্য সরবরাহ করা হয়েছে। ভুলে ভরা তথ্য ও নিন্ম মানের এ পরিচয় পত্র নিয়ে চলতে হচ্ছে কুবি শিক্ষকদের।
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অবস্থিত পোষ্ট অফিসের কোন পোষ্ট কোড না থাকলেও পরিচয় পত্রে একটি পোষ্ট কোড নাম্বার উল্লেখ করা হয়েছে। জানা যায় সরবরাহকৃত পোষ্ট কোডটি কুমিল্লা বার্ডে অবস্থিত পোষ্ট অফিসের পোষ্ট কোড। কেন এই পোষ্ট কোডটি ব্যাবহার করা হল এ সম্পর্কে কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।
এদিকে পরিচয় পত্রে সরবরাহকৃত শিক্ষকদের ছবিটি খুবই অস্পষ্ট অবস্থায় দেখা গিয়েছে এবং সম্পূর্ণ পরিচয়পত্রটি প্রায় অস্পষ্ট ছাপা এবং নি¤œমানের হয়েছে বলে কুবির একাধিক শিক্ষক জানান। এছাড়া জানা যায় পরিচয় পত্র তৈরির জন্য গঠিত পরিচয় পত্র প্রনয়ন কমিটির কনভেনার বিজ্ঞান অনুষদের ডীন ড. মোঃ আবু তাহের তার পূর্ববর্তী কর্মরত প্রতিষ্ঠানে এই পরিচয় পত্রটি তৈরি করেন। আর এই পরিচয় পত্রে সেই প্রতিষ্ঠানের নামও উল্লেখ আছে। সূত্রে জানা যায়, সরকারী কাজে ১৫ হাজার টাকার বেশী খরচ হলে টেন্ডার বা কোটেশন আহ্বান করতে হয় এবং সর্বনিন্ম দরদাতাকে কাজটি দেয়ার বিধান রয়েছে। কিন্তু কুবি শিক্ষকদের পরিচয় পত্র দেয়ার ক্ষেত্রে কোন নিয়মের তোয়াক্কা না করে সকল নিয়মকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে নিজের খেয়াল খুশি মত তিনি তার পূর্বে কর্মরত প্রতিষ্ঠান থেকে পরিচয়পত্র তৈরী করান। যার কারণে পুরো পরিচয়পত্র প্রদান প্রক্রিয়াটি এখন প্রশ্নবিদ্ব।
এ ব্যপারে জানতে চাওয়া হলে পরিচয় পত্র প্রনয়ন কমিটির কনভেনার বিজ্ঞান অনুষদের ডীন ড. মোঃ আবু তাহের বলেন,পরিচয় পত্রে যে ভুল আছে তা অনিচ্ছাকৃত হয়েছে। টেন্ডার বা কোটেশন আহ্বান করার ব্যাপারে তিনি বলেন,একটি পরিচয় পত্রে মাত্র ৫০টাকা খরচ হয়েছে,সব মিলিয়ে ১৫০০ টাকার কম খরচ হয়েছে তাই এখানে টেন্ডার হওয়ার প্রশ্নই উঠেনা। তিনি আরও বলেন, খুব তাড়াতাড়ি আমরা পরিচয় পত্র সংশোধনের মাধ্যমে শিক্ষকদে কাছে প্রদান করবো।
কুবির অনেক শিক্ষকই দাবী করেন আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থায়নে প্রথম বারের মত তৈরীকৃত পরিচয়পত্রে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের সত্বাধিকারের কথা উল্লেখ থাকবে, কিন্তু সেখানে কেন অন্য প্রতিষ্ঠানের নাম ব্যাবহার করা হয়েছে সেটা আমাদের বোধগম্য হচ্ছে না। উল্লেখ্য ভুলে ভরা ও নি¤œমানের পরিচয়পত্র হাতে পাওয়ার পর কুবির শিক্ষকবৃন্দ তা স্বাচ্ছন্দে ব্যাবহার ও প্রদর্শন করতে পারছেন না। যা শিক্ষকদের প্রতি মূহুর্তে বিব্রতকর পরিস্থিতির সম্মুখিন করছে।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply