চৌদ্দগ্রামে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অফিস : দুর্ঘটনার আশংকা

জামাল উদ্দিন স্বপন:–
কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অফিস। যে কোন সময় দুর্ঘটনার আশংকা করছেন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি লিখিতভাবে জানালেও কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
সংশ্লিষ্ট সুত্র জানায়, ১৯৮২ সালে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর নিজস্ব অর্থায়নে তিন কক্ষ বিশিষ্ট একটি ভবন নির্মাণ করে। ভবনটি নির্মাণের সময় ত্রুটি থাকার কারণে তখন থেকেই সামান্য বৃষ্টি হলেই ছাদ দিয়ে পানি পড়ত। স্থানীয় প্রশাসন বিষয়টি বারবার লিখিত ও মুখিকভাবে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানায়।
পরে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অফিসের তৎকালিন প্রধান প্রকৌশলী এম এ করিম ১৯৯০ সালে ভবনটি সংস্কারের জন্য নির্দেশ দেয়। তখন সঠিকভাবে সংস্কার না হওয়ায় ১৯৯৫ সালে আবারও প্রধান প্রকৌশলীকে লিখিতভাবে অবহিত করা হয়। এরপর দীর্ঘ ১৮ বছরেও ভবনটির কোন সংস্কার না হওয়ায় ক্রমান্বয়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি একটি কক্ষের ছাদের প্লাষ্টার ও সিলিং ফ্যানসহ বেশ কয়েকটি রড ধসে পড়লে অফিসে কর্মকর্তাদের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। অপর দুটি কক্ষেরও বিভিন্ন স্থানে ফাটল দেখা দিয়েছে এবং মাঝে মাঝে প্লাষ্টার ধ্বসে পড়ছে।
এব্যাপারে উপজেলা সহকারী জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল কর্মকর্তা খালেকুজ্জামান জানায়, ঝরাজীর্ণ ভবনে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ৮ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী অফিস করতে হচ্ছে। জানি না কখন দুর্ঘটনার শিকার হতে হয়। তবে বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিত ও মৌখিকভাবে কয়েকবার জানালেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply