কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে দাবী আদায়ের আশ্বাসে আন্দোলন স্থগিত

রাসেল মাহমুদ,কুবি থেকে:–

শেষ পর্যন্ত দাবী আদায়ের আনন্দ নিয়ে ক্যাম্পাস ছাড়লেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ( সি এস ই) এবং ইনফরমেশন এন্ড কমিনিকেশন টেকনোলজি ( আই সি টি) বিভাগের ছাত্র ছাত্রীরা টানা তিন দিনের মত বিক্ষোভ কর্মসূচী শেষে তাদের দাবি আদায়ের ব্যাপারে আশ্বাস পেয়ে আন্দোলন স্থগিত ঘোষনা করে।
সোমবার, টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে প্রশাসনিক ভবন অবরোধ সহ নানা কর্মসূচীর মাধ্যমে দিনের কর্মসূচী শুরু করে আন্দোলন কারী কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ ( সি এস ই) এবং ইনফরমেশন এন্ড কমিনিকেশন টেকনোলজি বিভাগ ( আই সি টি) বিভাগের ছাত্র ছাত্রীরা।
আজ ১ টার দিকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে আলোচনার ডাক আসলে কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ ( সি এস ই) বিভাগের ১ম ব্যাচের ছাত্র মোঃ ইমরান হোসেনের নেতৃত্বে ১১ সদস্যের ছাত্র প্রতিনিধি দলএবং প্রশাসনের পক্ষে বিজ্ঞান অনুষদের ডীন আবু তাহের এবং কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ ( সি এস ই) এবং ইনফরমেশন এন্ড কমিনিকেশন টেকনোলজি বিভাগ ( আই সি টি) বিভাগের সকল শিক্ষকবৃন্দ অংশ নেন। প্রায় ১ ঘন্টার বৈঠক শেষে প্রশাসনের প্রতিনিধিবৃন্দ কুবি ভিসির সাথে সাক্ষাত শেষে ছাত্র প্রতিনিধিদের সাথে আবার একটি সংক্ষিপ্ত মিটিংয়ে মিলিত হয়। এ সময় কুবির প্রশাসনিক ভবনের সামনে উত্তেজিত আন্দোলন কারীরা মিছিল করতে থাকে।
এক পর্যায়ে বিজ্ঞান অনুষদের ডীন আবু তাহের ও ছাত্র প্রতিনিধিরা প্রশাসনিক ভবনের সামনে আসেন। এ সময় বিজ্ঞান অনুষদের ডীন ও পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান আবু তাহের উৎসুক আন্দোলন কারী ছাত্র ছাত্রীদেরকে বলেন, “তোমাদের দাবী মেনে নেয়ার ব্যাপারে উপাচার্য স্যারের সাথে কথা হয়েছে । তোমরা আগামী ৩ মাসের মধ্যেই আলাদা অনুষদ ও আলাদা ফ্যাকাল্টি পাবে”। তিনি আরো বলেন, আগামী ৩ মাসের মধ্যে কুবিতে চিকিৎসা বিজ্ঞান অনুষদ ও প্রকৌশল এবং প্রযুক্তি অনুষদ বাস্তবায়িত হবে।
এরপর ছাত্র প্রতিনিধিদের অনুরোধে আন্দোলন কারীরা তাদের আন্দোলন কর্মসূচী আগামী আগষ্ট মাস পর্যন্ত স্থগিত ঘোষনা করে।
এদিকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে এরুপ আশ্বাস পাওয়ার পরপরই আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে একটি আনন্দ করে।
এই ঘোষনার পরপরই তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় ইনফরমেশন এন্ড কমিনিকেশন টেকনোলজি বিভাগ ( আই সি টি) বিভাগের ১ম ব্যাচের ছাত্র আলাউদ্দিন বলেন, “আমরা আমাদের দাবী আদায় করতে সমর্থ হয়েছি। এখন আমরা নিজেদেরকে একজন ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে পরিচয় দিতে পারব। আমরা অত্যান্ত খুশি।”
এছাড়া ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি এবং পৃথক ফ্যাকাল্টির দাবী আদায়ের অন্যতম আযোজক ও সমন্নয়ক কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ (সি এস ই) ১ম ব্যাচের ছাত্র মোঃ ইমরান হোসেন বলেন, “আমরা ভিসির আশ্বাসে আমাদের কর্মসূচী আপাতত ৩ মাসের জন্য স্থগিত করেছি। প্রশাসন আমাদের থেকে ৩ মাসের সময় চেয়েছে, আর তাই আমরা ৩ মাসে সময় তাদেরকে দিয়েছি। আগামী আগষ্টের প্রথম সপ্তাহে মধ্যে প্রশাসন আমাদের দাবী বাস্তবায়ন না করলে আমরা কঠোর থেকে কঠোরতর কর্মসূচী দেব।”
এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ ( সি এস ই) বিভাগের প্রধান আব্দুল মালেক জানান, দুই বিভাগের শিক্ষার্থীরা যে দাবি জানিয়েছে তা যৌক্তিক।
উপাচার্য ড.আমির হোসেন খানের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন,ওই দুই বিভাগের শিক্ষার্থীরা যে দাবি জানিয়েছে,তা বিবেচনা করে আলাদা অনুষদ করার প্রক্রিয়া চলছে।
উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টার দিকে কুবি ক্যাম্পাসে সি. এস. ই এবং আই, সি, টি বিভাগের ছাত্র ছাত্রীরা ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি এবং পৃথক ফ্যাকাল্টির দাবী জানিয়ে এই আন্দোলন কর্মসূচীর ডাক দেয়। ঐদিন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply