কুমিল্লায় পুকুরে বিষ ঢেলে মাছ নিধন

মোঃ কামরুজ্জামান জনি, কুমিল্লা:–

কুমিল্লার কোতয়ালী মডেলথানাধীন পাঁচথুবী ইউনিয়নের শালধর এলাকায় লীজ নেওয়া পুকুরে বিষ ঢেলে প্রায় কয়েক লক্ষাধিক টাকার মাছ নিধন করেছে দুর্বৃত্তরা। গত রোববার রাত ১০টায় এ ঘটনা ঘটে। এ বিষয়ে কোতয়ালী মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগ থেকে জানা যায়-কুমিল্লা মহানগরীর সংরাইশ এলাকার সাহেব বাড়ীর মৃত রউফ মিয়ার পুত্র মাহবুবুর রহমান কয়েক বৎসর আগে সরকারের কাছ থেকে ৫ বৎসরের জন্য কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানাধীন শালধর গ্রামের গোমতী নদীর আইলের সাথে ৮ ’শ শতক পুকুরের লিজ নিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন। মাছ চাষকৃত পুকুর থেকে শালধর এলাকার মৃত ফিরোজ মিয়ার পুত্র সোহেল ও আলম মিয়ার পুত্র রাজন জাল দিয়ে মাছ চুরি করে ধরে নিয়ে যাওয়ার সময় পুকুরের নাইট গার্ড মোঃ মহসিন হাতে নাতে ধরে ফেলে। এ সময় ওই এলাকার মাছ চোর সোহেল ও আলম মিয়াসহ ৪/৫ জন উল্টো নাইট গার্ডকে মারধরসহ বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখায়। এ ঘটনাটি নাইট গার্ড মোহসিন পুকুরের মালিক মাহবুবুর রহমানকে জানালে তিনি মাছ চোর সোহেল ও আলমসহ ৪/৫ জনের অভিভাবকদেরকে অবগত করলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে মাহবুবুর রহমানকে বিভিন্ন হুমকি ধমকি ও পুকুরে বিষ ঢেলে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। পরে রোবার রাত ১০ টায় পুকুরের নাইট গার্ড মহসিন পুকুর পাড়ে গিয়ে দেখে পুকুরের সকল মাছ মরে গিয়ে ভেসে উঠে। তাৎক্ষনিক পুকুরের মালিক মাহবুবকে জানালে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন প্রায় কয়েক লক্ষাধিক টাকার মাছ মরে যায়। এ বিষয়ে গতকাল সোমবার কোতয়ালী মডেল থানায় মাহবুবুর রহমান বাদী হয়ে ৬ জনকে আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। আসামীরা হলেন কোতয়ালী মডেল থানাধীন শালধর এলাকার মৃত ফিরোজ মিয়ার পুত্র সোহেল (২৬), ফিরোজ মিয়ার পুত্র জুয়েল (২৪), আলম মিয়ার পুত্র রাজন (৩৪), মৃত ফজলু মিয়ার পুত্র বাহাদুর মিয়া (৫৫) ও তার ভাই ইদু মিয়া (৫২) এবং আলম মিয়া (৬০)সহ অজ্ঞাত ৪/৫ জন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply