ব্রা‏হ্মণপাড়ায় চোর সহ চুরি হওয়া মোটর সাইকেল উদ্ধার

ব্রা‏হ্মণপাড়া প্রতিনিধি:–
কুমিল্লার ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলা সদর থেকে ২৫ এপ্রিল সন্ধ্যায় মোটর সাইকেল চুরি হওয়ার পর তড়িৎ উদ্ধার তৎপরতায় আধা ঘন্টার মধ্যে চুর সহ মোটর সাইকেলটি উদ্ধার করে মালিকের নিকট হস্তান্তর করেন ব্রা‏হ্মণপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ উত্তম কুমার বড়–য়া।
সূত্রে জানা যায়, ব্রা‏হ্মণপাড়া সদরের মুলফত আলীর ছেলে স-মেইল মালিক দেলোয়ার হোসেন ঘটনার দিন সন্ধ্যা আনুমানিক ৮ঘটিকায় তার মোটর সাইকেল (কুমিল্লা-হ-১১৫৬০১) দোকানের সামনে রেখে পাশের সেলুনে সেভ করতে যায়। সেভ করে আসার পর দেখতে পায় মোটর সাইকেলটি যথাস্থানে নাই। এসময় সে পার্শ্ববর্তী লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পর নিশ্চিত হয় যে তার মোটর সাইকেলটি চুরি হয়ে গেছে। তাৎক্ষনিক সে ঘটনাটি মোবাইলের মাধ্যমে ব্রা‏হ্মণপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ উত্তম কুমার বড়–য়াকে জানান। এ ব্যাপারে ওসি উত্তম কুমার বড়–য়া সাংবাদিকদের নিকট ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তখন আনুমানিক সোয়া ৮টা বাজে। আমি সংবাদ পাওয়ার সাথে সাথে আমার মোবাইল দিয়ে মীরপুর পুলিশ ফাড়ী, এস.আই ইকতার মিয়া, চান্দলা সিএনজি ষ্ট্যান্ড, ব্রা‏হ্মণপাড়া সদরের নাইঘরের মোড়ে পুলিশ ও সোর্সদের নিকট খবরটি জানিয়ে দেই। তার কিছুক্ষন পর নাইঘর রাস্তার পাশে তালেব হোসেন মার্কেটের সামনে চুরি হওয়া মোটর সাইকেল সহ ৩জনের সন্ধান পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হই। এসময় মোটর সাইকেল চুরির সাড়ে জড়িত থাকার অপরাধে ব্রা‏হ্মণপাড়া এলাকার আবুল হাশেমের ছেলে আল আমীন, নাইঘর গ্রামের কেরামত আলীর ছেলে ব্রা‏হ্মণপাড়া ইউনিয়ন ছাত্রদলের আহবায়ক মোহাম্মদ আলী, শরিয়তপুর জেলার বেদেরগঞ্জ উপজেলার মইশা গ্রামের মৃত আবুল হাশেমের ছেলে ওয়াসিমকে গ্রেফতার করে মোটর সাইকেল সহ থানায় নিয়ে আসি। বিস্তারিত তথ্য নেয়ার পর ২৬ এপ্রিল কুমিল্লা কোর্টে চালান দেই। আটক মোহাম্মদ আলী, আল আমীন ও ওয়াসিম জানায় ভুল ক্রমে তাদের সাইকেল মনে করে মোটরসাইকেলটি নেয়া হয়েছিল। মোটর সাইকেলের মালিক দেলোয়ার ও তার ভাই আনোয়ার এই বক্তব্যের প্রেক্ষিতে জানান, আমার মোটর সাইকেলের চাবি আমার কাছে ছিল। গাড়ির চাবি ছাড়া ভুল করে কেউ মোটর সাইকেল নিতে পারেনা। তাদের কাছে মাষ্টার কি থাকতে পারে। যা দিয়ে এলাকায় বিগত দিনে বহু গাড়ী চুরি করেছে বলে আমাদের বিশ্বাস। তারা আরও জানান, গত ১ থেকে দেড় বছর পূবে আমাদের আরও একটি গাড়ী চুরি হয়েছিল। এভাবে কিছুদিন পর পর ব্রা‏হ্মণপাড়া সদর থেকে মোটর সাইকেল চুরি হয়। তাদেরকে সেই চক্রের সদস্য বলে সন্দেহ করছি আমরা। ঘটনায় দ্রুত তম সময়ের মধ্যে চুর সহ মোটর সাইকেলটি উদ্ধার হওয়ায় পুলিশ প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়ে চুর চক্রের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি কামনা করেন তারা। এ ব্যাপারে ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলা বি.এন.পির সদস্য সচিব শাহ আলম খোকন ও সাংগঠনিক দায়িত্বে আমির হোসেন জানান, ভূল বসত একটি মটর সাইকেল নেওয়া হয়েছে, এইটি একটি ভুল বুঝা বুঝি মাত্র। ঘটনাটিকে রাজনৈতিক হয়রানির জন্য মামলা করা হয়েছে আমরা এই মিথ্যা মামলার নিন্দা জানাই।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply