সরাইলে ঝুঁকিপূর্ণ সেতু মেরামত কাজে নিন্মমানের পুরাতন ইট : দূর্ঘটনার আশঙ্কা

আরিফুল ইসলাম সুমন,সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া):–

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল-অরুয়াইল সড়কের চুন্টা ইউপির রসুলপুর এলাকায় ঝুঁকিপূর্ণ একটি সেতুর মেরামত কাজ করা হচ্ছে নিন্মমানের পুরাতন ইট দিয়ে। এতে যেকোন সময় বড় ধরণের দূর্ঘটনার আশঙ্কা করছে স্থানীয়রা।
জানা গেছে, এলজিইডি’র আওতায় ৬১ লাখ ৫৪ হাজার টাকা ব্যয়ে এ সেতুর মেরামত কাজ চলছে। কাজটি বাস্তবায়ন করছে ‘মেসার্স নির্মাণ বিল্ডাস’ নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। এ কাজের শুরু থেকেই নিন্মমানের পুরাতন ইট ব্যবহার করছেন ঠিকাদার।
সরাইল-অরুয়াইল সড়কে নিয়মিত যানবাহন চালক আলমগীর মিয়া, মোহাম্মদ আলী, আবেদ মিয়াসহ অনেকে বলেন, এ সেতুর ওপর দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে। পুরাতন ইট দিয়ে সেতুর মেরামত কাজ করা হচ্ছে। যেকোন সময় দূর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে।
চুন্টা ইউপি চেয়ারম্যান শেখ হাবিবুর রহমান বলেন, অত্যন্ত ব্যস্ততম সড়কে সেতুটির অবস্থান। দীর্ঘ দিনের পুরনো এ সেতু এখন ঝুঁকিপূর্ণের তালিকায় স্থান পেয়েছে। সেতুর বিভিন্ন অংশে ভাঙন দেখা দিয়েছে। এখানে নতুন একটি সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। মাটির নীচে বিশাল আকৃতির পাথর থাকায় তা সম্ভব হয়নি। পরে কর্তৃপক্ষ সেতুটি সংকারের উদ্যোগ নেয়। নিন্মমানের পুরাতন ইট ব্যবহারে ঠিকাদারকে বাধা দেয়া হয়েছিল। তারা কোন কথাই শুনছে না।
অরুয়াইল ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বলেন, উপজেলার উত্তরাঞ্চলের কয়েক হাজার মানুষের চলাচল এ সেতু দিয়ে। মেরামত কাজে পুরাতন ইট ব্যবহারের ফলে যেকোন সময় সেতুটি ভেঙে পড়তে পারে।
পাকশিমুল ইউপি চেয়ারম্যান কাজী মোজাম্মেল হক বলেন, এই ঝুঁকিপূর্ণ সেতু মেরামতের নামে সরকারি বরাদ্দ অপচয় করা হচ্ছে। এ সেতুতে যেসব নিন্মমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করা হচ্ছে, অনেক সাধারণ মানুষ এসব দিয়ে বাড়ির টয়লেটও নির্মাণ করেন না।
এ সেতু মেরামত কাজে তদারকির দায়িত্বে থাকা সরাইল এলজিইডির উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. সেলিম মিয়া বলেন, সরকারের টাকা বাঁচাতে গিয়ে ঠিকাদার এ সেতুর কাজে পুরাতন ইট ব্যবহার করছেন। নতুন ইট আনা হলে সেই অনুযায়ী মূল্য ধরা হবে। তবে ইটগুলো পুরাতন হলেও এর গুনগতমান ভাল।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply