দেবিদ্বারে হত্যা মামলা প্রত্যাহার না করায় বাদীকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগে মামলা

দেবিদ্বার প্রতিনিধি:–
কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার জীবনপুর গ্রামের হাবিব খান হত্যা মামলা প্রত্যাহার না করায় মামলার বাদী কাবিল খানকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগে থানায় আরো একটি মামলা দায়ের হয়েছে। গত ৯ এপ্রিল উপজেলার জীবনপুর গ্রামের প্রতিবেশী মোঃ রুবেল মূন্সী(৩০), কামরুল মূন্সী(২৫), ফিরুজ মূন্সী(৫৫), আউয়াল মূন্সী(৪৫) অভিযুক্ত করে হত্যা মামলার বাদী কাবিল খান ওই মামলা দায়ের করেন।
মামলার বাদী কাবিল খান বলেন, ২০০৭ সালের ২০ ডিসেম্বর পূর্ব শত্রুতার জের ধরে অভিযুক্ত রুবেল তার সহযোগীদের নিয়ে কুমিল্লার বিশ্বরোড এলাকায় চলন্ত ট্রাকের নিচে ফেলে দিয়ে তার ভাই হাবিব খানকে হত্যা করে এবং তার সাথে থাকা ১ লক্ষ ৬০হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়ে হত্যাকারীরা আত্মগোপনে চলে যায়। আত্মগোপনে থাকা অবস্থায় দুবাই পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে আসামী পক্ষের লোকজন ওই ঘটনাকে সড়ক দূর্ঘটনা বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা চালায়। ঘটনার আসল রহস্য উদঘাটনের পর কাবিল খান বাদী হয়ে ওই দিন রাতে রুবেরসহ ৭জনকে অভিযুক্ত করে দেবিদ্বার থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি বর্তমানে চলমান থাকলেও ইতিমধ্যে আসামী পক্ষ মামলা প্রত্যাহারে নানাভাবে হুমকী ও মামলা প্রতাহার না করলে আমাকে ভাই হাবিবের পরিনতির শিকার হতে হবে বলেও হুমকী দিয়ে আসছিল। মামলা প্রধান আসামী চলতি বছরের ফেব্রুয়ারী মাসে দুবাই থেকে দেশে ফিরে আসার পর মামলা প্রত্যাহারের চাঁপ দিতে থাকে। গত ৮এপ্রিল রাতে দেবিদ্বার থেকে বাড়ি ফেরার পথে পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা হত্যা মামলার আসামীরা আমার উপর বিভিন্ন মরনাস্ত্র নিয়ে ঝাপিয়ে পড়ে। হামলায় আমার মাথা থেতলে দেয়, আমার তিনটি দাঁত ভেঙ্গে ফেলে এবং আমার মৃত্যু নিশ্চিত ভেবে ওরা রাস্তার পার্শ্বে ফেলে আমার সাথে থাকা ৫০হাজার টাকা নিয়ে যায় এবং আমার বহনকারী মোটর সাইকেলটিও ভেঙ্গে ফেলে যায়।
এব্যাপারে মামলা তদন্ত কর্মকর্তা দেবিদ্বার থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) মোঃ গোলাম জিলানী বলেন, পূর্বশত্রুতার জের ধরে কাবিল খান ও রুবেল মূন্সীর পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল, একটি হত্যা মামলাকে কেন্দ্র করে সর্বশেষ হামলার ঘটনায় মামলা হয়েছে, মামলার তদন্ত চলছে।

Check Also

দাউদকান্দিতে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

হোসাইন মোহাম্মদ দিদার :কুমিল্লার দাউদকান্দিতে শান্তা বেগম (২৪) নামে এক গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। ...

Leave a Reply