আত্মবিশ্বাস নিয়ে জিম্বাবুয়ে গেল বাংলাদেশ

ঢাকা :–
সিরিজ জয়ের স্বপ্ন নিয়ে বাংলাদেশ দল আজ সন্ধ্যায় উড়াল দিয়েছে জিম্বাবুয়ের পথে। ২০১১ সালেও একই স্বপ্ন দিয়ে জিম্বাবুয়ে সফরে গিয়ে টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ হেরেছিল বাংলাদেশ। পূর্বের সেই তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে বাংলাদেশকে কথা বলতেও হয়েছে হিসাব কষে। তবে সাম্প্রতিক সময়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের অভিজ্ঞতা মুশফিকদের আত্মবিশ্বাসী হওয়ার রসদ জোগাচ্ছে। দেশ ছাড়ার আগে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দেরে বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিক নিজের দলকে এগিয়ে রাখার কথাই বলেছেন।

মুশফিকুর রহিম বলেছেন, ‘আগের জিম্বাবুয়ে সফরে আমরা ভালো খেলতে পারিনি। তখন যে ব্যর্থ হয়েছিলাম, তা কাটিয়ে উঠার সুযোগ থাকছে এবার। শ্রীলঙ্কা সফরে আমাদের ব্যক্তিগত এবং দলীয় পারফরমেন্স ভালো হয়েছে। সেদিক থেকে আমাদের আত্মবিশ্বাস ভালো। আমরা মানসিক এবং শারীরিকভাবে এই সফরের জন্য প্রস্তুত। যদিও জিম্বাবুয়েকে তাদের মাঠে হারানো সহজ হবে না। তারা যখন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাজে খেলেছে, ওই সময়ে আমরা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভালো করার আত্মবিশ্বাস নিয়ে যাচ্ছি। এ কারণে তাদের আত্মবিশ্বাস নিচের দিকে থাকবে। এদিকে আমাদের দলে সাকিব এবং তামিম ইনজুরি কাটিয়ে ফিরেছে, তাতে দলীয় শক্তিও কিছুটা বাড়বে। আমাদের পেস বোলাররা হারারের উইকেটের সুবিধা কাজে লাগাতে পারবে বলে আশা করছি।’

২০১১ সালে জিম্বাবুয়ে সফরে একমাত্র টেস্টে হারার পর ৫ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজও ৩-২ ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশ। ওই ব্যর্থতা মনে রেখেই মুশফিক বলেছেন, ‘গত এক দেড় বছর আমরা খুব ভালো খেলছি এবং ধারাবাহিক পারফর্ম করছি। টোয়েন্টি২০-তে প্রত্যাশিত নাহলেও ওয়ানডে এবং টেস্টে আমরা অনেক ভালো করছি। এই পারফরমেন্স ব্যক্তিগত ও দলীয়ভাবে আমাদের উজ্জীবিত করছে। আমাদের দলে এখন অনেক পারফরমার আছে, যারা যেকোনো দিন পারফর্ম করতে পারে। এটা দলের জন্য খুবই ইতিবাচক দিক।’

প্রতিষ্ঠিত দলগুলোর বিপক্ষে সিরিজ নিয়ে যতটা চিন্তায় থাকে বাংলাদেশ; তার চেয়ে বেশি ভাবতে হয় জিম্বাবুয়ে বা আয়াল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজগুলো নিয়ে। কারণ বড় দলগুলোর বিপক্ষে হারের অজুহাত থাকে, কিন্তু জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হারের পরই বিশ্ব ক্রিকেটে বাংলাদেশের সম্ভাবনা নিয়ে নানাজন কথা বলতে শুরু করেন। ওই কথাটাই মনে করিয়ে মুশফিক জিম্বাবুয়ে সফরে চাপে থাকার বিষয়টিও স্বীকার করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘জিম্বাবুয়ে ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে খেলতে গেলে আমারা চাপে থাকি। শ্রীলঙ্কা সফরে এর চেয়েও তিন-চার গুণ বেশি চাপ ছিল। প্রতিপক্ষ শক্তিশালী, আবার ওদের বিপক্ষে আমাদের অতীত রেকর্ড ভালো ছিল না। সেদিক থেকে বলব, চাপ থাকবে, কিন্তু চাপ জয় করে ভালো খেলতে হবে।’

Check Also

কুমিল্লার বিপক্ষে ১৫৩ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে রাজশাহী

ক্রীড়া প্রতিবেদক :– বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটে রাজশাহী কিংসকে ১৫৩ রানের টার্গেট দিলো কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। ...

Leave a Reply