নারী সফলতার প্রতিফলন—–কাজী কোহিনূর বেগম তিথি

photo
আমাদের আশে পার্শ্বের মানুষদের সফলতা নিয়ে লেখালেখির অভ্যাসটা আমাদের সবার থাকা ভাল। এই দৃষ্টিভঙ্গীর প্রাক্টিস যত করব ততই মানব সমাজে সফলতার প্রতিফলন ঘটবে। পরিবার আর সমাজের সফলতা নিয়ে যদি পর্যালোচনা করি তাহলে বলতে হবে
যে পরিবারে বা সমাজে নারীদের সফলতা যত বেশী সেই পরিবার বা রাষ্ট্রে কল্যান তত বেশী। এখন নারীরা অনেকটা এগিয়ে এসেছে সাফল্য মন্ডিত জীবনে। এখন সফল নারীর সংঙ্গাটা কি ? এটা নিয়ে যদি ভাবি কিন্তু নারীর সেই সফলতা নিয়ে পর্যাপ্ত পরিমানে প্রশংসা আমরা করছি না – যা আমাদের প্রতিটা মানুষের দায়িত্ব। আমরা যদি এভাবে চিন্তা করি
একজন নারীর সফলতা কোন চিন্তা ধারা থেকে এসেছে ? তাহলে আমাদের সমাজ ব্যবস্থা অনেক সংস্কারের দিকে এগিয়ে যাবে । একজন নারীকে মানুষ ভেবে যথার্থ মূল্যায়ন করলে পরিবার -সমাজ -রাষ্ট্র কিভাবে উন্নতির দিকে ধাবিত হতে পারে ? একটু পর্যালোচনা করা দরকার।

আমার পরিচিত কোন নারীর সফলতার কথা যদি আলোচনা করতে যাই যার নাম মনে পড়ে তিনি হচ্ছেন ফাতেমা খানম রোজী।স্কুলের গন্ডী পেরিয়ে ঠিক কলেজ জীবন শুরু। তখন বিয়ে হয় মো: তরিকুল ইসলাম ডলারের সাথে। হাসিখুশি ভাবেই দিনগুলি কাটছিল মিসেস রোজীর – বিয়ের কিছুদিন পর অনুভব করলেন সংসার জীবনে মেয়েদের অবদান রাখার জন্য লেখাপড়া continue করা জরুরী। Husband এর সহযোগীতায় এইচ এস সি , ডিগ্রী এবং মাস্টার্স শেষ করেছেন। এরই মধ্যে দু – সন্তানের জননী হয়েছেন। সংসার জীবনে সব কিছু সামলিয়ে সন্তানদের বড় করা -নিজের লেখাপড়া ঠিক রেখে অবশেষে তিনি খুলনায় আদর্শ মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করছেন।

বিয়ের পর অনেক ত্যাগ তিতীক্ষার পর এসব স্তরগুলো পার করতে হয় – সব সচেতন মেয়েদের। একজন সচেতন নারী তার স্বকীয়তা নিয়ে অবশ্যই পথ চলতে চাইবে। আর সেজন্য তাকে স্ব-উদ্যগী হতে হবে। সব নারীদের বুঝতে হবে যার যার যোগ্যতা অনুযায়ী অবশ্যই সে সংসার -সমাজ এবং রাষ্ট্রের কল্যানে আসতে পারে। কর্মব্যস্ততা মানুষকে সুখী করে। রোগ – শোক দূর করে। wife মঙ্গলজনক কাজ করলে সেটা Husband এর ও সুনাম তথা পরিবারের সকলের সুনাম। এখন মেয়েরা যদিও বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কর্মে অংশ নিচ্ছেন কিন্তু প্রশংসাটা পর্যাপ্ত পরিমান হওয়া আরো খুব বেশী জরুরী। আজ যারা সমাজে সফল নারী তাদেরও দায়িত্ব আছে পিছিয়ে পড়া নারীদের প্রতি। প্রয়োজনে পিছিয়ে পড়া নারীদের আত্বশক্তি বিকাশের জন্য দি হাঙ্গর প্রজেক্ট অব বাংলাদেশ এর মত প্রতিষ্ঠানে নারী নেত্রীর ট্রেনিং দেওয়ার জন্য উদ্যেগ নিতে হবে। এই ট্রেনিং শুধু কর্মজগতে নয় সংসার জীবনেও সফলতা আনয়নের জন্য অত্যন্ত কার্যকরী। সফল নারী মানেই সফল সংসার – সফল সমাজ আর সফল রাষ্ট্র।

—————–
কাজী কোহিনূর বেগম তিথি
লেখিকা এবং সমাজকর্মী
kazitithi@gmail.com

Check Also

মাদকসন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সরকারকেই জোরালো ভূমিকা নিতে হবে

—-মো. আলীআশরাফ খান লেখার শিরোনাম দেখে হয়তো অনেকেই ভাবতে পারেন, কেনো লেখাটির এমন শিরোনাম দেয়া ...

Leave a Reply