কুমিল্লার বরুড়ায় খাস পুকুর টেন্ডারে অনিয়ম অভিযোগ ৮দিনেও সর্বোচ্চ দরদাতাকে কোন চিঠি দেয়নি কমিটি

শাহিন জামান, বরুড়া (কুমিল্লা) থেকে:—
কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার ঝলম বাজারে খাস পুকুর টেন্ডারে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে, ঝলম মৎস্যজীবি সমিতিকে কম মূল্যে পুকুর পাইয়ে দিতে উপজেলা সার্টিফিকেট সহকারী সুবোধ রঞ্জন মজুমদার নানান টালবাহানা করছেন। ফলে টেন্ডার হওয়ার ৮দিনেও সর্বোচ্চ দরদাতাকে কোন চিঠি দেয়নি টেন্ডার কমিটি।
সূত্র জানায়, ঝলম বাজারে ২.৫৮ একরের খাস পুকুরটি গত ১৯ ফেব্রুয়ারি প্রথম টেন্ডার হয়। ওই দিন একটি মহল ঝলম মৎস্যজীবি সমিতি ছাড়া অন্য কাউকে টেন্ডারে অংশগ্রহণ করতে দেয়নি। তারা টেন্ডারে ওই পুকুরটি মাত্র ১৮হাজার ৫শ টাকা দাম নির্ধারণ করে। এ বিষয়ে গত ২২ ফেব্রুয়ারি কয়েকটি পক্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর প্রশাসনের টনক নড়ে। টেন্ডার কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ছানিয়া আক্তার পূনরায় টেন্ডার আহবান করেন। গত ১৯ মার্চ ২য় দফায় টেন্ডারের শেষ দিনে চালিয়া জয়নগর মৎস্যজীবি সমিতি সর্বোচ্চ ১লাখ ৬ হাজার টাকা দরে টেন্ডার দাখিল করে। অপরদিকে ঝলম মৎস্যজীবি সমিতি মাত্র ২০ হাজার টাকা দরে টেন্ডার দাখিল করে। অভিযোগ রয়েছে উপজেলা সার্টিফিকেট সহকারী সুবোধ রঞ্জন মজুমদার মোটা অংকের উৎকোচের বিনিময়ে ঝলম মৎস্যজীবি সমিতিকে ঝলম পুকুরটি দেয়ার জন্য চুক্তি করার ফলে টেন্ডার হওয়ার ৮দিনেও সর্বোচ্চ দরদাতাকে কোন চিঠি দেয়নি টেন্ডার কমিটি।
এবিষয়ে টেন্ডার কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, সর্বোচ্চ টেন্ডার দাতাকে নিয়মানুযায়ী ওই পুকুর দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply