কুমিল্লার ব্রা‏হ্মণপাড়ায় ২ গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৬

dt778857মিজানুর রহমান সরকার, ব্রা‏হ্মণপাড়া (কুমিল্লা)প্রতিনিধিঃ—
কুমিল্লার ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলার সাহেবাবাদ ইউনিয়নের টাটেরা গ্রমে বুধবার(২০ মার্চ) সকালে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ২ গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে ৬জন আহত। বাড়ীঘর সহ মূল্যবান আসবাবপত্র ভাংচুর করার অভিযোগে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে ব্রা‏হ্মণপাড়া থানা পুলিশ।

সূত্রে জানা যায়, টাটেরা গ্রামের মৃত সামছুল হকের ছেলে ব্রা‏হ্মণপাড়া বাজারের মাইক ব্যবসায়ী শহীদুলর রহমান ও একই গ্রামের রেনু মিয়ার ছেলে কামাল হোসেন গংদের ১৯ মার্চ মাটি কাটা নিয়ে হাতাহাতি হয়। ওই সূত্র ধরে ২০ মার্চ সকালে শহীদুর রহমানের বাড়ীতে গিয়ে কামাল হোসেন গংদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এসময় উভয় গ্রুপের ৬জন আহত হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে চিটকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানায় তারা। শহীদ গ্রুপের আহতরা যথাক্রমে শহীদুর রহমান (৬০) তার স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৫০) কামাল গ্রুপের মধ্যে কামাল হোসেন (৩৫) তার ভগ্নিপতি হরিমঙ্গল গ্রামের ছৈয়দ আলীর ছেলে কবির হোসেন (৩০) কামালের ভাই বাবুল মিয়া (৩৯) তার অপর ভাই খোরশেদ আলম সুবল (৩৫)। বর্তমানে শহীদুর রহমানের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় ব্রা‏হ্মণপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজে প্রেরণ করেন কর্তব্যরত ডাক্তার।

অপরদিকে কামাল গ্রুপের খোরশেদ আলম সুবলের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকেও কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজে প্রেরণ করেছেন কর্তব্যরত ডাক্তার। বাকীরা ব্রা‏হ্মণপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ঘটনার বিবরনে স্থানীয়রা জানায়, ২০ মার্চ সকালে কামাল গ্রুপের লোকজন শহীদুর রহমানের বাড়ীতে মারধর করে গুরুতর আহত করে। তার অবস্থা আশংকাজনক দেখে শহীদুর রহমানের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে কামাল হোসেন গংদের বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ২টি ঘর, ১টি ওয়াশিং মেশিন, ১টি ফ্রিজ সহ ঘরে থাকা আসবাবপত্র ভাংচুর করে। খবর পেয়ে ব্রা‏হ্মণপাড়া থানার এস.আই ইয়াহিয়া, এস.আই ইকতার মিয়া সঙ্গীয়ফোর্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। প্রতিবেদন লিখা পর্যন্ত উভয় গ্রুপের কেউ থানায় মামলা দায়ের করেনি বলে জানায় ব্রা‏হ্মণপাড়া থানা পুলিশ।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply