কুমিল্লার ব্রা‏হ্মণপাড়ায় পুলিশ কনষ্টেবলের বাড়ীতে কান্নার রোল, দ্রুত ফেরত আনতে আইন মন্ত্রী ব্যারিষ্টার শফিক আহমেদের আশ্বাস

DSC02511 copyমিজানুর রহমান সরকার, ব্রা‏হ্মণপাড়া (কুমিল্লা)প্রতিনিধিঃ—
বান্দরবান নাইখ্যাংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তে ৩ পুলিশ সদস্য সহ ৪জনকে আটক করে মিয়ানমার নিয়ে যাওয়ার ৭দিন পরও ফেরত না দেয়ায় ছবি নিয়ে আহাজারি করছে ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের রানীগাছ গ্রামের মৃত আবদুর রহিমের ছেলে পুলিশ কনষ্টিবল ইরফান সরকারের স্ত্রী হাবছা বেগম সহ স্বজনরা। আইন মন্ত্রী ব্যারিষ্টার শফিক আহমেদ ও এলাকার এমপি সাবেক আইন মন্ত্রী এড. আবদুল মতিন খসরু এমপির আশ্বাস দ্রুত বাস্তবায়নের প্রহন গুনছে তারা।
জানা গেছে ১৩ মার্চ বুধবার ৩ পুলিশ সদস্য সহ ৪জনকে আটক করে নিয়ে যায় মিয়ানমার সীমান্ত রক্ষী (নাশাকা) বাহিনী। আটককৃতদের ফেরত আনতে বিজিবির পক্ষ থেকে পতাকা বৈঠক হলেও সারা মিলছেনা মিয়ানমার সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর পক্ষ থেকে। তাদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, স্থানীয় ক্যাম্প কমান্ডার না থাকায় বৈঠক করা স¤ভব হচ্ছে না। আটককৃত পুলিশ কনষ্টেবল ইরফান সরকার (নং ১৭৮৫) তার মা রুশিয়া বেগম ভাই আবদুল বাতেন চাচাতো ভাই মৃত হাজী আবদুল বারেকের ছেলে হাজী নোয়াব মিয়া সাংবাদিকদের জানান বান্দরবানের নাইখ্যাংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তের উখিয়ার কুতুপালং স্বরনার্থী শিবির ও উখিয়া টিভি রিলে ষ্টেশন নিরাপত্তায় কর্মরত ৩ পুলিশ কনষ্টেবল ইরফান সরকার (১৭৮৫) ইমরান হোসেন (১২৫৮) মজিবুর রহমান (১০৫৮) চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার ডুমুরিয়া ব্যাপারী পাড়া এলাকার মোখলেছুর রহমানের ছেলে সাইফুল ইসলাম (১৮)কে আটক করে নিয়ে যায় ১৩ মার্চ বিকেলে। তিনি আরও জানান কৌতুহল বশত অজ্ঞাত কারনে বেসামরিক পোশাকে সীমান্ত এলাকায় ঘুরতে গিয়ে সীমান্তের ওপাড়ে চলে যায়। এসময় বে আইনী ভাবে অনুপ্রবেশ করার দায়ে নাশাকা সদস্যরা তাদেরকে আটক করে। আটককৃত পুলিশ সদস্য কুমিল্লা ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলার ইরফানের মা রুশিয়া বেগম জানান আমার ছেলে ২০১১ সালে ফেব্রুয়ারী মাসে পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করেন। সে আমার ৩ ছেলে ৩ মেয়ের মধ্যে ছোট। সে ২০০৮ সালে মুরাদনগর নবিয়াবাদ আলহাজ্ব ওয়াদুধ সরকার আলীম মাদরাসা থেকে আলীম পাশ করেছে। ২০১০ সালে দেবিদ্বার সরকারী কলেজ থেকে বিএ পাশ করেন। রানীগাছ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল হান্নান জানান, আমি পুলিশ কনষ্টেবল ইরফান সরকারকে ব্যক্তিগত ভাবে চিনি। সে অত্যন্ত ভাল ছেলে। ইরফান সরকারের মা, ভাই বাতেন বলেন, আমরা যে কোন উপায়ে ইরফানকে ফেরত চাই। এই কথা বলে বার বার আহাজারি করছেন ইরফানের পরিবারের সদস্যরা। এই ব্যাপারে আইন মন্ত্রী ব্যারিষ্টার শফিক আহমেদ এ’প্রতিনিধিকে জানান, আটককৃতদের ফেরত আনার জন্য রাষ্ট্রীয় ভাবে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। দ্রুত ফিরিয়ে আনার আশ্বস দেন তিনি। এলাকার এমপি সাবেক আইন মন্ত্রী এড. আবদুল মতিন খসরু বলেন আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে আলাপ করে অচীরেই পুলিশ কনষ্টেবল ইরফান সহ মিয়ানমারে আটককৃতদের ছাড়িয়ে আনার ব্যবস্থা করার জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। দ্রুত আশ্বাস বাস্তবায়নের প্রহন গুনছেন ইরফানের আত্ত্বিয়স্বজন সহ এলাকাবাসী।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply