রাবি ফুলকুঁড়ি আসরের বার্ষিক পরিকল্পনা গ্রহণ

রাজশাহী প্রতিনিধিঃ—
জাতীয় শিশু-কিশোর সংগঠন ফুলকুঁড়ি আসর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা যুগোপযোগী কর্মসূচী, প্রয়োজনীয় তত্ত্বাবধান ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আসরকে আরও গতিশীল ও সুদৃঢ় করার লক্ষ্যে ২০১৩ সালের বার্ষিক পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। শনিবার সকালে শাখা পরিচালক এস এম এ বারীর সভাতিত্বে এ পরিকল্পনা নেয়া হয়।
২০১৩ সালে বার্ষিক পরিকল্পনা গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সহকারী পরিচালক শাহাদাত হোসেন, অর্থ সম্পাদক মুস্তাফিজুর রহমান, শিক্ষা-সাহিত্য সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, খেলাধুলা ও ব্যায়াম সম্পাদক আব্দুর রহমান হালিম, প্রচার সম্পাদক এজাজুল হক। এছাড়াও বিভিন্ন বিভাগীয় সম্পাদক ও কর্মী পরিষদ সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
বার্ষিক পরিকল্পনার বিষয়ে শাখা পরিচালক এস এম এ বারী বলেন আমাদের পরিকল্পনা একটু দেরিতে হলেও নেয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন কোন কিছু পরিচালনার জন্য একটি সুন্দর পরিকল্পনা প্রয়োজন। তাই জাতীয় শিশু-কিশোর সংগঠন হিসেবে ফুলকুঁড়ি আসর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখাও পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। এ পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করতে পারলে ফুলকুঁড়ি আসর আরো সামনের দিকে এগিয়ে যাবে। বিস্তারিত পরিকল্পনার জন্য তিনি আসরের কর্মী পরিষদ সদস্য, বিভাগীয় সম্পাদক, শিশু-কিশোর এবং অভিভাকদের সহযোগিতা কামনা করেন।
ফুলকুঁড়ি আসর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখায় এবার ৫০০ সদস্য বৃদ্ধি, দুইটি নতুন আসর বৃদ্ধি এবং চলমান আসরগুলোতে কাজের গতি বাড়ানোর পরিকল্পনা হাতে নেয়া হয়েছে। এছাড়াও অংকুরিত, চৌকস, অগ্রপথিক বৃদ্ধির পরিকল্পনাও গ্রহণ করেছে। পাঁচটি বিভাগে নিয়মিত অনুষ্ঠান ছাড়াও বিশেষ অনুষ্ঠানগুলোর প্রতি পূর্বের চেয়ে এবার অধিক গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।
বিভাগগুলোর মধ্যে শিক্ষা-সাহিত্য বিভাগে পাঠাগার বৃদ্ধি, সাহিত্য সভা, সাহিত্য প্রতিযোগিতা, বিতর্ক অনুষ্ঠান, বই পাঠ প্রতিযোগিতা, দেয়ালিকা প্রকাশ, রচনা প্রতিযোগিতা, ক্যাম্পেইন, শিক্ষা কর্মশালার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। সাংস্কৃতিক বিভাগে দিবস পালন, মৌসুমী ফলের আসর, এসো গান শিখি, এসো অভিনয় শিখি, ইফতার অনুষ্ঠান করা হবে বলে পরিকল্পনাতে জানানো হয়। খেলাধুলা ও ব্যায়াম বিভাগের অন্তর্গত প্লাটুন তৈরি ও বৃদ্ধি, জেলা প্রশাসন কর্তৃক কুচকাওয়াজে অংশগ্রহণ, মাঠের কাজ, স্পোর্টিং ক্লাবের নিয়মিত অনুশীলন ইত্যাদির পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। কৃষি-শিল্প-বিজ্ঞান বিভাগের মধ্যে রয়েছেন ব্যক্তিগত বাগান বৃদ্ধি ও পরিদর্শন, বৃক্ষরোপণ অভিযান, ক্ষুদে বিজ্ঞানীর আসর, বিজ্ঞান প্রজেক্ট তৈরি, বিজ্ঞান মেলায় অংশগ্রহণ,চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা। সমাজসেবা বিভাগে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান, শাীতবস্ত্র বিতরণ, ঈদবস্ত্র বিতরণ, শিক্ষা উপকরণ বিতরণ, বিনামূল্যে ব্লাডগ্র“পিং, শিশু কল্যাণ তহবিল গঠন ইত্যাদির পরিকল্পনা হাতে নেয়া হয়েছে।
২০১৩ সালের পরিকল্পনায় নিয়মিত পাঁচটি বিভাগ ছাড়াও পাঠাগার বৃদ্ধি সপ্তাহ, সদস্য বৃদ্ধি পক্ষ, চৌকস বৃদ্ধি মাস, বৃক্ষরোপণ মাস পালন করা হবে। শিক্ষা-সাহিত্য বিভাগের বিশেষ প্রকল্প সচিত্র শিশু-কিশোর মাসিক ফুলকুঁড়ি পত্রিকার গ্রাহক বৃদ্ধি এবং লেখক তৈরির পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। সাংস্কৃতিক বিভাগের বিশেষ প্রকল্প কিশোর থিয়েটার গঠনে উপস্থিত কর্মী পরিষদ সদস্যরা গুরুত্ব দেন। এতে এ বিভাগের কার্যক্রমকে আরো গতিশীল করতে নিয়মিত সাংস্কৃতিক অনুশীলন, বিচিত্রা অনুষ্ঠানের ভিডিও-স্ক্রিপ্ট সংরক্ষণ, নাটক মঞ্চায়ন করা হবে। এছাড়াও ক্ষুদে শিল্পী বাছায়ের জন্য ফুলকুঁড়ি ওয়ান নামে একটি অনুষ্ঠান করার পরিকল্পনা হাতে নেয়া হয়েছে। কৃষি-শিল্প-বিজ্ঞান বিভাগের বিশেষ প্রকল্প ফুলকুঁড়ি বিজ্ঞান চক্রের রেজিস্ট্রেশন, ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের নিয়ে বিজ্ঞান ভ্রমণ, ৪র্থ জাতীয় বিজ্ঞান মেলায় অংশগ্রহণ, নিয়মিত বিজ্ঞান ক্লাশ, বিজ্ঞান কুইজ প্রতিযোগিতার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়।
বিভাগীয় ও বিশেষ প্রকল্পের কাজ ছাড়াও বিবিধের মধ্যে ছিল সংগঠক ও ফুলকুঁড়িদের মানোন্নয়নের উদ্যোগ গ্রহণ, ফুল ভাইয়াদের সাথে যোগাযোগ, ইতিহাস ও ঐতিহ্য জেনে শিশুদের নিয়ে গবেষণা, অন্যান্য সেবামূলক ও শিশু সংগঠনের সাথে যোগাযোগ, শিশু ভুবন গড়ার প্রচেষ্টা ফুলকুঁড়ি আসর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ২০১৩ সেশনের পরিকল্পনার মধ্যে অন্তর্ভক্ত হয়েছে।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply