কুমিল্লার চান্দিনা মেডিকেল সেন্টারে ডাক্তার ও নার্সের অবহেলায় এক শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ

Chandina Picture 12-03-13-1মাসুমুর রহমান মাসুদ, স্টাফ রিপোর্টার চান্দিনাঃ—
চান্দিনা উপজেলা সদরের থানা রোড এলাকায় অবস্থিত চান্দিনা মেডিকেল সেন্টার প্রাইভেট লিমিটেড নামক একটি বেসরকারি হাসপাতালে ডাক্তার ও নাসের্র দায়িত্ব অবহেলায় ১ দিন বয়সের এক শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। নিহত শিশুটি বরুড়া থানার কাটাখলা গ্রামের মোক্তার হোসেন ও রেহানা আক্তার এর দ্বিতীয় সন্তান। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার (১২ মার্চ) বিকেলে। অক্সিজেন দেওয়ার জন্য আমরা নই, অপারেশ থিয়েটারে কাজ আমাদের কাজ আছে- এমন অজুহাতে অক্সিজেন দিতে দেরি করার ফলেই ওই শিশুটির মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন নিহতের পরিবারের সদস্যরা। এদিকে ঘটনার পর নিহতের স্বজনরা হাসপাতাল ঘেরাও করে। এসময় চান্দিনা মেডিকেল সেন্টার এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করে। ঘটনার পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ গা-ঢাকা দেয়। সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাউকে পাওয়া যায়নি। এদিকে কর্তব্য অবহেলায় শিশুটির মৃত্যু হওয়ায় সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছে নিহতের স্বজনরা। রাতে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ওই ঘটনায় চান্দিনা থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।
নিহত শিশুর নানা মো. আবদুল মান্নান ও নানী জাহানারা বেগম অভিযোগ করেন, গতকাল বিকাল ৩ টায় তাদের নিজ বাড়ী চান্দিনা উপজেলার বেলাশ্বর গ্রামের শিশুটি ভুমিষ্ট হয়। জন্মের পর শিশুটি কোন চিৎকার না করায় স্বস্থ্যগত সমস্যা মনে করে নানী জাহানারা বেগম তাকে চান্দিনা মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে আসে। এসময় কর্তৃব্যরত ডা. গিয়াস উদ্দিন বাচ্চটিকে দেখে প্রেসকিপশন করেন এবং লিখিতভাবে সাথে সাথেই অক্সিজেন লাগানোর নির্দেশ দেন।
তিনি আরও অভিযোগ করে বলেন ‘‘আমি হাসপাতালের দোতালায় গিয়ে নার্সদেরকে মা ডেকে বলছি আমার রোগীটা দেইখা দেন। এসময় নার্সরা জবাবে বলেন, আপনার রোগী দেখার জন্য আমরা না, অপারেশন থিয়েটারে আমাদের কাজ আছে। এভাবে আমি তাদের অনেকবার অনুরোধ করি। দীর্ঘ সময় পর এক পর্যায়ে আমার সাথের লোকজন উত্তেজিত হলে এক নার্স শিশুটিকে কোলে নিয়ে মৃত বলে জানায়।’’
এ ব্যাপারে কর্তৃব্যরত ডা. গিয়াস উদ্দিন বলেন, রোগী নিয়ে আসার পর আমি শিশুটিকে দেখেছি। এসময় শিশুটি জীবিত ছিল। বুকে কফ জমা আছে এজন্য সাকসেশন ও অক্সিজেন দিতে লিখিত নির্দেশ দিয়ে নার্সদের নিকট পাঠাই। পরে শুনেছি শিশুটি মারাগেছে।
এ ব্যাপারে চান্দিনা মেডিকেল সেন্টার প্রাইভেট লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. ইয়াহিয়া রায়হান বলেন, অক্সিজেন দিতে দেরি হয়েছে এ অভিযোগটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। শিশুটি জন্মের পর কোন চিৎকার দেয়নি বলে আমি শুনেছি। আমি ওই সময় হাসপাতালে ছিলাম না। তাই এর বেশি কিছু বলতে পারছি না।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply